Dr. Taposh Kumar Biswas

ড. তাপস কুমার বিশ্বাস

অধ্যাপক, শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

তাপস কুমার বিশ্বাস ১৯৭৮ সালে কুষ্টিয়া জেলার খোকসা উপজেলার একতারপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা ছিলেন প্রধান শিক্ষক, মা গৃহিণী।

তিনি ১৯৯৪ সালে কুষ্টিয়ার ঈশ্বরদী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং ১৯৯৬ সালে নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। এরপর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউট থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। এরপর তিনি ২০০৬ সালে নরওয়ে সরকারের বৃত্তি নিয়ে অসলো মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমফিল ডিগ্রি সম্পন্ন করেন। ২০১৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটে ২০০৯ সালে খণ্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন এবং ২০১০ সালে তিনি পূর্ণকালীন প্রভাষক পদে যোগদান করেন। পরবর্তীতে ২০১৩ সালে সহকারী অধ্যাপক, ২০১৭ সালে সহযোগী অধ্যাপক পদে এবং ২০২১ সালে অধ্যাপক পদে উন্নীত হন।

শিক্ষকতা ছাড়াও দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থায় শিক্ষা, প্রশিক্ষণ এবং গবেষণা উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেছেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংস্থার সাথেও জড়িত।

দেশি-বিদেশি ২০টিরও অধিক গবেষণা প্রবন্ধ এবং জার্মানি থেকে ২০১৩ সালে একটি গবেষণামূলক গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়াও বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট কর্তৃক পরিচালিত প্রাথমিক শিক্ষকদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণের কয়েকটি রিসোর্স বই প্রণয়ন এবং সম্পাদনা করেছেন।

সম্প্রতি বাংলাদেশ কারিগরি ও বৃত্তিমূলক বোর্ডের উদ্যোগে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের তত্ত্বাবধানে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার জন্য নবম ও দশম শ্রেণির পাঠ্যপুস্তক রচনায় লেখক প্যানেলে শিক্ষাক্রম বিশেষজ্ঞ বা প্যাডাগগ হিসেবে কাজ করছেন।

পারিবারিক ও সংসার জীবনে এক কন্যা সন্তান এবং একজন পুত্র সন্তানের গর্বিত জনক এবং তার স্ত্রী একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত।

সৃজনশীল ও শিক্ষার্থীবান্ধব শিক্ষাব্যবস্থা কেন জরুরি?

বর্তমানে প্রচলিত পঠন—পাঠন ও মূল্যায়ন ব্যবস্থা হিসেবে যে পদ্ধতি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে সেটাকে আর যাই হোক শিক্ষার্থীবান্ধব বা শিক্ষার্থী কেন্দ্রিক শিক্ষাব্যবস্থা হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করা কোনোভাবেই সম্ভবপর হচ্ছে না...

মাধ্যমিকে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য পাঠ : চ্যালেঞ্জ ও করণীয়

আমাদের দেশের মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাক্রমে বিগত দিনে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার বিষয়ক পাঠের যথার্থ ঘাটতি বিদ্যমান ছিল।

শিক্ষাব্যবস্থা সংস্কার, আমাদের মানসিকতা ও বাস্তবতা

আমাদের দেশে এখন শিক্ষার্থী খুঁজে পাওয়া খুবই কঠিন, চারদিকে সবাই এখন শুধুমাত্র পরীক্ষার্থী...