বর্ষসেরা এয়ারলাইন উদ্যোক্তা ইউএস-বাংলার এমডি আবদুল্লাহ আল মামুন

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:০১ পিএম


বর্ষসেরা এয়ারলাইন উদ্যোক্তা ইউএস-বাংলার এমডি আবদুল্লাহ আল মামুন

প্রতিমন্ত্রীর হাত থেকে ক্রেস্ট নিচ্ছেন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন

বাংলাদেশের এভিয়েশন সেক্টরে অভাবনীয় সফলতার গল্প রচনার জন্য বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো বছরের সেরা এয়ারলাইন উদ্যোক্তার সম্মাননা পেলেন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন।

শুক্রবার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এক অনুষ্ঠানে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুনের হাতে বছরের সেরা এয়ারলাইন উদ্যোক্তার সম্মাননা তুলে দেন।

সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মনিটরের সম্পাদক কাজী ওয়াহিদুল আলম, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামসহ ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজম সেক্টরের প্রতিনিধিরা।

২০২২ সালের সেরা ডমেস্টিক এয়ারলাইনের পুরস্কার পেয়েছে ইউএস-বাংলা। এশিয়ার সেরা এয়ারলাইন্স হওয়ার স্বপ্ন দেখছে প্রতিষ্ঠানটি। সারা বিশ্বে যেখানে যেখানে বাংলাদেশিরা অবস্থান করছেন, সেসব গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনার পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।

সব পরিকল্পনার কারিগর হিসেবে দেশের এভিয়েশনকে সুসংহত করার লক্ষ্যে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন।

শনিবার ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স জানায়, ২০১৪ সালের ১৭ জুলাই দুইটি ড্যাশ-৮ কিউ-৪০০ এয়ারক্রাফট নিয়ে ঢাকা থেকে যশোরে ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে যাত্রা শুরুর পর এখন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স দেশের সব বিমানবন্দরে সর্বোচ্চ সংখ্যক ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

বর্তমানে ইউএস-বাংলার বিমান বহরে মোট ১৬টি এয়ারক্রাফট রয়েছে। এর মধ্যে ছয়টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০, সাতটি এটিআর ৭২-৬০০ ও তিনটি ড্যাশ-৮ কিউ-৪০০ এয়ারক্রাফট। আন্তর্জাতিক রুটে নয়টি দেশের ১১টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে প্রতিষ্ঠানটি। চলতি বছর নিজেদের বহরে চারটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও তিনটি এটিআর ৭২-৬০০ এয়ারক্রাফট যোগ করার পরিকল্পনা রয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের।

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো কোনো বেসরকারি এয়ারলাইন্স হিসেবে ইউএস-বাংলা অভ্যন্তরীণ রুটে যাত্রীদের জন্য ব্র্যান্ড নিউ এয়ারক্রাফট যুক্ত করেছে। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের উড়োজাহাজগুলোর গড় বয়স প্রায় ১০ বছর। উড়োজাহাজগুলোর গড় বয়স সাত থেকে আট বছরে করার পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। 

২০২৪ সালের মধ্যে লন্ডন, রোমসহ ইউরোপের বিভিন্ন গন্তব্যে এবং ২০২৫ সালের মধ্যে নিউইয়র্ক, টরন্টোতে ফ্লাইট পরিচালনার পরিকল্পনা করছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। চলতি বছরের মধ্যে ঢাকা থেকে জেদ্দা রুটে ফ্লাইট শুরু পরিকল্পনার রয়েছে তাদের।

গত নয় বছর ধরে পরিকল্পনা আর বাস্তবায়নকে সঙ্গে নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা। প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশে প্রথম বেসরকারি এয়ারলাইন্স হিসেবে গ্লোবাল ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম ট্রাভেলপোর্টের মাধ্যমে টিকেট বিক্রয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছে।

বর্তমানে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সে দুই হাজারেরও বেশি কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন, যারা দেশে-বিদেশে কর্মরত। বেসরকারি এয়ারলাইন্সের মধ্যে একমাত্র ইউএস-বাংলায় কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য প্রভিডেন্ট ফান্ড সুবিধা রয়েছে।

এআর/আরএইচ

Link copied