রাত ২টায় প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়ার জন্য ডাকলো শাবি!

Dhaka Post Desk

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক, শাবি

৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ০৯:০৩ পিএম


রাত ২টায় প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়ার জন্য ডাকলো শাবি!

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষে মানবিক শাখার শিক্ষার্থীদের রাত ২টায় ভর্তি হতে আসার জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ভর্তি সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিতে এমনটাই দেখা গেছে। 

বিজ্ঞপ্তিতে দেখা যায়, আগামী ২ ফেব্রুয়ারি গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তির আওতায় শিক্ষার্থীদের ভর্তির জন্য ডাকা হয়েছে। এতে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য আসন ফাঁকা রয়েছে মোট ১২৪টি এবং মানবিক শাখার জন্য সিট ফাঁকা রয়েছে মোট ১০টি। এ দুই শাখার শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের ডাকা হয়েছে ২ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টা (৯ এএম) থেকে এবং মানবিক শাখার শিক্ষার্থীদের ডাকা হয়েছে একই তারিখ রাত ২টায় (২ এএম)।

dhakapost
ভর্তি বিজ্ঞপ্তির স্ক্রিনশট

মূলত বিজ্ঞপ্তিতে ভুল সময় উল্লেখ করা হয়েছে। তবে গতকাল রাতে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিটি প্রায় ২৪ ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও সংশোধন না করায় রাত ২টায়ই ভর্তি হতে আসার জন্য ডাকা হয়েছে বলে মনে করছেন শিক্ষার্থীরা। এতো রাতে শিক্ষার্থীরা কীভাবে ভর্তি হতে আসবেন তা নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন। 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি কমিটির টেকনিক্যাল কো-অর্ডিনেটর কম্পিউটার সায়েন্স  অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক মো. মাসুম বলেন, এটা ভুলবশত হয়েছে। আমরা এটা খেয়াল করিনি। এটা দুপুর ২টা হবে। আমরা এটা সংশোধন করে দিচ্ছি।

ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুসারে দেখা যায়, বিজ্ঞান ও মানবিক বিভাগ থেকে শিক্ষার্থীদের ভর্তির জন্য আগামী ২ ফেব্রুয়ারি ডাকা হয়েছে। এতে একাডেমিক ভবন- এ এর ১২৯ নং কক্ষে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ শিক্ষার্থীদের আসার জন্য বলা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তি অনুসারে নৃবিজ্ঞান বিভাগে বিজ্ঞান বিভাগে ২৫ এবং মানবিকে ১০, বাংলা বিভাগে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৩, সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগে ২৩, লোকপ্রশাসন বিভাগে ৪, পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগে ১৬, সমাজকর্ম বিভাগে ২৫ এবং সমাজবিজ্ঞান বিভাগে মোট ২৮টি করে আসন ফাঁকা রয়েছে।

এর আগে ৭ বার ডেকেও শিক্ষার্থী ভর্তি হতে না আসায় এরপর গণবিজ্ঞপ্তি দেয় বিশ্ববিদ্যালয়টি। এরপরও আসন পূর্ণ করতে না পারায় মোট ১৩৪টি আসন ফাঁকা রেখেই শিক্ষার্থীদের নবীনবরণের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। 

জুবায়েদুল হক রবিন/আরএআর

Link copied