শাবি ভিসিকে দুঃখ প্রকাশের পরামর্শ শিক্ষামন্ত্রীর

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, সিলেট

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ০১:৪৪ পিএম


শাবি ভিসিকে দুঃখ প্রকাশের পরামর্শ শিক্ষামন্ত্রীর

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা কারও জন্য কাম্য নয়। এ জন্য উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদকে সব মহলের কাছে দুঃখ প্রকাশের আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত না নেওয়া পর্যন্ত তাকে দায়িত্ব পালন করে যেতে বলেছেন মন্ত্রী।

শুক্রবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির সঙ্গে উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের বৈঠক শেষে শাবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

বৈঠকে উপস্থিত থাকা রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ইশফাকুল হোসেন বলেন, সংক্ষিপ্ত বৈঠকে উপাচার্য (ভিসি) ফরিদ উদ্দিন আহমেদকে তার দায়িত্ব চালিয়ে যেতে বলেছেন। সামনে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে আয়োজনে যেন কোনো ক্ষতি না হয়, সে বিষয়ে পরামর্শ দেন শিক্ষামন্ত্রী।

মন্ত্রীর বরাত দিয়ে আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত একটি ঘটনা ঘটেছে। এর দায়দায়িত্ব উপাচার্যের ওপরই বর্তায়। সে বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করে দায়িত্ব পালন করতে বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী। তবে স্বল্প সময়ে শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা সম্ভব হয়ে ওঠেনি জানিয়ে মন্ত্রী বলেছেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালনের জন্য জৌলুস বজায় থাকে, সে ধারাবাহিকতা বজায় রাখবেন।’

এর আগে শুক্রবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলসহ প্রতিনিধিদল শাবি ক্যাম্পাসে আসে। পরে সন্ধ্যা ৭টা ২৪ মিনিটের দিকে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বসতে উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আসেন। বৈঠক শেষে শিক্ষামন্ত্রী, ভিসিসহ প্রতিনিধিরা ক্যাম্পাস ছাড়েন।

পরে শুক্রবার বিকেলে সিলেট সার্কিট হাউসে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাড়ে তিন ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বৈঠক শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের অপসারণে শিক্ষার্থীদের দাবি রাষ্ট্রপতির কাছে জানানো হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘রাষ্ট্রপতিই উপাচার্যের নিয়োগ বা অপসারণের সিদ্ধান্ত দেন। এ কারণে শাবি উপাচার্যের অপসারণ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সব বক্তব্য রাষ্ট্রপতির কাছে আমি তুলে ধরব।’

মাসুদ আহমদ রনি/এনএ

টাইমলাইন

Link copied