ভুল বোঝাবুঝিতে নির্মাণ কাজ বন্ধ, দুর্ভোগ চরমে

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, নীলফামারী 

০৪ মার্চ ২০২২, ০৬:১৮ পিএম


ভুল বোঝাবুঝিতে নির্মাণ কাজ বন্ধ, দুর্ভোগ চরমে

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার গাড়াগ্রাম ইউনিয়নে ১২শ মিটার সড়ক এলাকাবাসীর গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঠিকাদারি প্রতিষ্টান এবং উপজেলা প্রকৌশল অফিসের ভুলবোঝাবুঝির কারণে সড়কের কাজ বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন পথচারীসহ হাজারো মানুষ।
 
উপজেলা প্রকৌশল অফিস সুত্রে জানা গেছে, ২০২০-২১ অর্থবছরে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গুরুত্বপূর্ণ পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় কিশোরগঞ্জ উপজেলার গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের আতারুলের বাড়ি থেকে বকুলের বাড়ি পর্যন্ত ১২০০ মিটার সড়ক নির্মাণের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়। দরপত্রের মাধমে কাজটি পান ঠিকাদারি প্রতিষ্টান রুবি এন্টার প্রাইজ। গত ২০২১ সালের ২৫ নভেম্বর সড়কটির নির্মাণ কাজের উদ্ধোধন করেন নীলফামারী-৪ আসনের সংসদ সদস্য আহসান আদেলুর রহমান আদেল।
 
গাড়াগ্রাম ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি মিজানুর রহমান বলেন, নীলফামারী-৪ আসনের সংসদ সদস্য সড়টির নির্মাণ কাজের উদ্ধোধন করার পর ঠিকাদারি প্রতিষ্টান সড়কের নির্মাণ কাজ শুরু করে। বেড কাটিং করার পর সড়কে বালু ফেলেই ঠিকাদার সড়কের নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেন।
 
আহেলার বাজারের বাসিন্দা রেয়াজুল ইসলাম বলেন, খুঁড়ে রাখার কারণে ওই সড়ক দিয়ে চলাচলে গ্রামবাসী প্রতিনিয়ম দুর্ভোগে পড়ছে। তার ওপর গত শুক্রবার হঠাৎ প্রচণ্ড শিলাবৃষ্টির কারণে সড়কটিতে হাঁটু পরিমাণ পানি জমে থাকায় দুর্ভোগ চরমে উঠেছে।
 
জানতে চাইলে ঠিকাদার মাহবুল ইসলাম বলেন, সড়কটির বেড কাটিং করার পর সড়কে বালু ফেলে তা মজবুতিকরণ করা হয়েছে। কিন্তু উপজেলা প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসান সড়কটির মজবুতিকরণ সঠিক হয়নি মর্মে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। প্রকৌশলী কাজ শুরু করতে বললে কয়েকদিনের মধ্যে সড়কটির কাজ শেষ হয়ে যেত। 

উপজেলা প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসান বলেন, ঠিকাদারকে কাজ বন্ধ করার জন্য লিখিতভাবে কিছু বলা হয়নি। ঠিকাদার নিজের স্বার্থে কাজ বন্ধ রেখেছেন। সড়কের মজবুতিকরণে কোনো গাফিলতি হয়েছে কি না এমন প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, সড়ক নির্মাণকাজ পরিদর্শন করে যদি কোনো অনিয়ম পরিলক্ষিত হয় তাহলে অব্যশই লিখিতভাবে কাজ বন্ধের নির্দেশ দেওয়ার পাশাপাশি প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শরিফুল ইসলাম/আরআই

Link copied