৩০০ পেয়ারা ও মাল্টাগাছের প্রতি হিংসা!

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, যশোর

১৫ মার্চ ২০২২, ০৪:৩০ পিএম


৩০০ পেয়ারা ও মাল্টাগাছের প্রতি হিংসা!

যশোরের চৌগাছায় শত্রুতার বলি হলো পেয়ারা ও মাল্টাগাছ। আব্দুল খালেক নামের এক কৃষকের প্রায় ৩০০ পেয়ারা ও মাল্টাগাছ রাতের আঁধারে দুর্বৃত্তরা কেটে সাবাড় করে দিয়েছে। এতে ওই চাষির লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে।

সোমবার (১৪ মার্চ) দিবাগত রাতে উপজেলার ধুলিয়ানী ইউনিয়নের শাহাজাদপুর গ্রামের পূর্বমাঠে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, কৃষক আব্দুল খালেক চলতি মৌসুমে নিজ গ্রামের মাঠে সাড়ে চার বিঘা জমিতে মাল্টা ও থাই পেয়ারা চাষ করেছিলেন। তিন মাস ধরে তিনি বাগানের পেয়ারা বিক্রি করে আসছেন। তবে মাল্টাগাছে এখনো ফলন আসেনি। হঠাৎ সোমবার রাতের কোনো এক সময়ে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা ১৩ কাঠা জমির চার সারির সব গাছ কেটে সাবাড় করে দিয়েছে।

ভুক্তভোগী কৃষক আব্দুল খালেক বলেন, আজ মঙ্গলবার সকালে পরিচর্যার কাজে খেতে গিয়ে দেখি আমার বাগানের ৪টি সারির প্রায় ৩০০ গাছ কেটে দিয়েছে কে বা কারা। আমার কারও সঙ্গে কোনো শত্রুতা নেই। তবে কেউ হয়তো হিংসায় এ ক্ষতি করতে পারে।

তিনি আরও বলেন, অভাব-অনটনের সংসারে অনেক কষ্ট করে প্রায় চার বিঘা জমিতে পেয়ারা ও মাল্টা চাষ করেছি। এখন পর্যন্ত মোট জমিতে পাঁচ লাখ টাকার ওপরে ব্যয় হয়েছে। প্রায় ৫০ হাজার টাকার পেয়ারা বিক্রি করেছি।

এখন প্রতিটি গাছ ফুল আর ফলে ভরা। চার বিঘার ১৩ কাঠা জমির প্রায় ৩০০ গাছ কেটে সাবাড় করায় আমার লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। পাঁচ বছর বিক্রি করে পাঁচ লক্ষাধিক টাকা আয় করতে পারতাম। আমি এর বিচার চাই। আমি থানায় অভিযোগ করব।

এ বিষয়ে চৌগাছা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন, ঘটনাটি সম্পর্কে আমার জানা নেই। ভুক্তভোগী কৃষক অভিযোগ দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জাহিদ হাসান/এনএ

Link copied