লাশ উদ্ধারে ঝাঁপিয়ে পড়লেন ওসি

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, শরীয়তপুর

১১ এপ্রিল ২০২২, ০৯:৩১ পিএম


লাশ উদ্ধারে ঝাঁপিয়ে পড়লেন ওসি

শরীয়তপুরের সখিপুরে মাছভর্তি একটি পিকআপ ভ্যান নিয়নন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে চালকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (১১ এপ্রিল) দুপুরে চরপায়াতলী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। পরে ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। 

হেল্পার পালিয়ে যাওয়ায় এখনো নিহতের নাম জানা যায়নি। দুর্ঘনার শিকার পিকআপটি চট্টগ্রাম থেকে মাছ নিয়ে খুলনার দিকে যাচ্ছিল বলে জানা গেছে। 

তবে সবকিছু ছাপিয়ে ওই ঘটনায় ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া লাশ উদ্ধারের কয়েকটি ছবি সবাইকে আলোড়িত করেছে। ছবিতে দেখা যায়, সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান নিজে নিহতের লাশের ব্যাগ ধরে তুলে নিয়ে আসছেন। অন্য কয়েকটি ছবিতেও দেখা যায়, তিনি ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সঙ্গে লাশ উদ্ধারে সহযোগিতা করছেন। এ ঘটনায় এলাকায় প্রসংশায় ভাসছেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আহম্মেদ শাকিল নামে একজন পোস্ট করে লিখেন, স্যালুট- শরীয়তপুরের সখিপুর থানার মানবিক ওসি মো. আসাদুজ্জামান হাওলাদার। সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের লাশ উদ্ধার করতে ঝাঁপিয়ে পড়েন পোশাক পরেই।

ইতোমধ্যে পজিটিভ কাজের জন্য তিনি পুলিশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ খেতাবে ভূষিত হয়েছেন। তিনি শরীয়তপুর জেলায় টানা ১১ বারের শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হয়ে আসছেন।

প্রত্যাক্ষদর্শী সাদ্দাম হোসেন বলেন, স্থানীয়রা দুর্ঘটনার খবর দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ওসি তার গাড়ি নিয়ে ঘটনা স্থলে চলে আসেন। কোনো কিছু চিন্তা না করেই নিজে ইউনিফর্ম পরিহিত অবস্থায় ঝাঁপিয়ে পড়েন লাশ উদ্ধার করতে। এ সময় তাকে খুবই বিমর্ষ দেখাচ্ছিল। পরে লাশ উদ্ধার করে তিনি থানায় নিয়ে যান।

সখিপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জাম ঢাকা পোস্টকে বলেন, এ ঘটনায় প্রসংশার তেমন কিছু নেই। আমি শুধু আমার  দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি। আপনারা দোয়া করবেন, আমি যেন দায়িত্বগুলো ঠিকমতো পালন করতে পারি এবং বাংলাদেশ পুলিশের ভাবমূর্তি উজ্জলে ভূমিকা রাখতে পারি।

স্থানীয় ও শরীয়তপুর জেলা পুলিশের তথ্যমতে, সখিপুর থানায় যোগদানের পর থেকেই ওসি আসাদুজ্জামান মানবিক ওসি হিসেবে পরিচিত হয়েছেন। ওয়ারেন্ট তামিল, আইশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিবেচনায় তিনি টানা ১১বার জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হয়েছেন। সর্বশেষ ২০২১ সালে নিজ কর্মক্ষেত্রে প্রসংশনীয় কাজ ও কৃতিত্বের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি পুলিশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদক ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ (আইজিপি) পদক পান।

সৈয়দ মেহেদী হাসান/আরআই

Link copied