কক্সবাজারে ১০ ঘণ্টায় ৩ পর্যটকের মৃত্যু ঘিরে রহস্য

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, কক্সবাজার

১৯ মে ২০২২, ০৮:৩৬ পিএম


কক্সবাজারে ১০ ঘণ্টায় ৩ পর্যটকের মৃত্যু ঘিরে রহস্য

ফাইল ছবি 

কক্সবাজারে বেড়াতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন পর্যটকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। তাদের মৃত্যু নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। এসব ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। 

জানা গেছে, কক্সবাজারের কলাতলীর হোটেল বিচ হলি ডেতে থাকা একজন, হোটেল রয়েল টিউলিপের একজন ও সিগালের একজন মারা গেছেন। তবে কেন, কীভাবে এই তিনজনের মৃত্যু হয়েছে তাৎক্ষণিকভাবে তা জানাতে পারেনি পুলিশ। একদিনে তিনজনের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় পর্যটকসহ স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। 

বুধবার (১৮ মে) কক্সবাজার কলাতলীর বিচ হলি ডে নামে একটি আবাসিক হোটেলে লাবণী আকতার (১৯) নামে এক পর্যটক অসুস্থ হয়ে মারা যায়। এর ২/৩ ঘণ্টা পর ইনানীর হোটেল রয়েল টিউলিপে একইভাবে অসুস্থ হয়ে মারফুয়া খানম (২৪) নামে আরও এক তরুণীর মৃত্যু হয়। এর চার ঘণ্টা পার না হতেই কলাতলী হোটেলে সিগালে অসুস্থ হয়ে আরও এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। 

এদিকে পুলিশ ও চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, লাবণী আকতার (১৯) নামে ওই তরুণী অতিরিক্ত মদপানে অসুস্থ হয়েছিলেন। পরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঁচদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর বুধবার দুপুর ২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এই সময় তরুণীর সঙ্গে থাকা চারজনের মধ্যে দুইজনকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে। 

এরপর বিকেলে কক্সবাজারের রয়েল টিউলিপে উঠা পর্যটক মারফুয়া খানম (২৩) নিজ  কক্ষে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। এ সময় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় তার সঙ্গে থাকা স্বামী পরিচয় দেওয়া এক যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ।

রয়েল টিউলিপের নিরাপত্তা কর্মকর্তা মেজর (অবসরপ্রাপ্ত) রফিকুল ইসলাম বলেন, বুধবার সকালে মারফুয়া খানম (২৩) ও নাছির উদ্দিন (২৬) নামে দুইজন স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে হোটেল রয়েল টিউলিপে ওঠেন। এরপর তারা ব্যাগসহ অন্যান্য জিনিসপত্র হোটেল কক্ষে রেখে সমুদ্র সৈকতে নামেন। দুপুরে খাবার শেষে নিজেদের কক্ষে অবস্থান নেন দুইজন। এর কিছুক্ষণ পর তরুণীর শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যার কথা বলা হলে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম বলেন, ওই তরুণীর মরদেহ ময়নাতদন্তের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে স্বামী পরিচয় দেওয়া নাছির উদ্দিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা প্রেমিক-প্রেমিকা বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন।

ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম জানান, মনিরুল ইসলাম (৪৬) ও লিজা রহমান উর্মি (৩৫) গত ১৮ মে হোটেল সিগালের ৭২৪ নম্বর রুমে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে উঠেন। পরে রাত সাড়ে ১২টায় মনিরুল অসুস্থ হয়ে পড়লে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এদিকে তিনজনের রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা চলছে। কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা আপাতত এ বিষয়ে কিছু বলতে পারছি না। ময়নাতদন্তের মাধ্যমে তাদের মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

সাইদুল ফরহাদ/আরএআর

Link copied