শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ নিরাপদ: খাদ্যমন্ত্রী

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, নওগাঁ 

২০ মে ২০২২, ০৬:৪৫ পিএম


শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ নিরাপদ: খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ নিরাপদ। তার দ্বারাই বাংলাদেশের উন্নয়ন সম্ভব। অন্য কোনো ব্যক্তি বা দলের নেতার কাছে বাংলাদেশ নিরাপদ নয়। শেখ হাসিনার চেয়ে বেশি উন্নয়ন করাও সম্ভব নয়।

শুক্রবার (২০) দুপুরে সাপাহার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের (অনূর্ধ্ব ১৭) ফাইনাল খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, জনপ্রিয় খেলা ফুটবল বিলুপ্ত হওয়ার পথে বসেছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট চালু করেন। এখন ফুটবল আবার গ্রাম-গঞ্জে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আমাদের নতুন প্রজন্ম লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা করে নিজেদের শরীরটাকে যেমন গঠন করবে, মাদক থেকেও দূরে থাকবে, নিজেকে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলবে।

dhakapost

বিএনপির নেতাকর্মীদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, যারা সারের জন্য, বিদ্যুতের জন্য মানুষকে গুলি করে মেরেছে, তারা নাকি আন্দোলন করবে। তারা মানুষকে কী আশ্বাস দেবে? 

বর্তমান বাজার পরিস্থিতি নিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমদানি করা জিনিসের দাম সারাবিশ্বে যদি বাড়ে, তাহলে আমাদেরও বাড়বে। এখানে আমাদের কিছু করার নেই। আমাদের সাশ্রয়ী হতে হবে, স্বাবলম্বী হতে হবে। তাহলেই সুখী-সমৃদ্ধ ও উন্নত বাংলাদেশ গড়ে উঠবে।

সাপাহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল্যাহ আল মামুনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান হোসেন মণ্ডল।

এ সময় কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শাপলা খাতুন, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. রুহুল আমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল আলম শাহ চৌধুরী, সাধরণ সম্পাদক মাসুদ রেজা সারোওয়ার, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী মোল্লাসহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শেষে খেলায় বিজয়ী দল পাতাড়ী ইউনিয়ন ফুটবল একাদশ এবং রানার্সআপ দল শিরন্টী ইউনিয়ন ফুটবল একাদশের অধিনায়ক ও সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন মন্ত্রী।

দেলোয়ার হোসেন/আরআই

Link copied