মেয়রকে টেনে কাদায় নামানোর চেষ্টা করলেন অবরোধকারীরা

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

২১ মে ২০২২, ০৯:৫৭ পিএম


মেয়রকে টেনে কাদায় নামানোর চেষ্টা করলেন অবরোধকারীরা

বালুর ট্রাক চলাচলে বেহাল হয়ে পড়েছে রাজশাহী ক্যাডেট কলেজে যাওয়ার প্রধান সড়কটি। চারঘাট পৌর এলাকার সারদা ট্রাফিক মোড় থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দীর্ঘ এ সড়কটির পাশে সারদা মহিলা কলেজ, মুক্তারপুর উচ্চবিদ্যালয় ও মুক্তারপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।

বৃষ্টি হলেই জমছে হাঁটু পানি। কাদা-জলে একাকার। প্রায় দুই বছর ধরে ভোগান্তি সঙ্গে নিয়ে এ পথ পাড়ি দিতে হচ্ছে পথচারীদের। বার বার মেরামতের অনুরোধ করেও কান দিচ্ছিলেন না পৌর মেয়র একরামুল হক।

রাস্তাটি সংস্কার দাবিতে শনিবার (২১ মে) সকাল ৯টার দিকে চারঘাট-বাঘা মহাসড়ক অবরোধ করেন এলাকবাসী। দুপুরে সেখানে যান পৌর মেয়র। ওই সময় মেয়রকে টেনে কাদায় নামানোর চেষ্টা করেন অবরোধকারীরা। শেষে জনগণের দাবির মুখে সড়ক মেরামতের আশ্বাস দেন মেয়র।

বিক্ষোভকারীরা জানান, সারদা ট্রাফিক মোড়ের ব্যবসায়ীরা একজোট হয়ে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সড়ক অবরোধ করেন। চারঘাট পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নাজমুল হাসানের নেতৃত্বে মাঝ বরাবর বাঁশ দিয়ে রাস্তা অবরোধ করে চেয়ার পেতে বসেন তারা।

অনেকেই কাদাপানির মধ্যে দাঁড়িয়ে যানবাহন ঠেকাতে থাকেন। বেলা পৌনে ১টা পর্যন্ত চলা এই অবরোধে রাস্তার দুই পাশে শত শত যানবাহন আটকে যায়। আটকা পড়ে পদ্মা থেকে বালু আনা-নেয়ায় যুক্ত ট্রাকগুলো।

দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ট্রাফিক মোড়ে যান চারঘাট পৌর মেয়র একরামুল হক। ওই সময় কাউন্সিলর নাজমুল হাসান বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে কাদাপানিতে নেমে দাবির পক্ষে বক্তব্য দেন। 

এরপর কাউন্সিলর জনগণের দাবির সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণায় মেয়রকে পানিতে নামার অনুরোধ করেন। এক পর্যায়ে বিক্ষোভকারীরা হাত ধরে মেয়রকে কাদাপানিতে নামানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু মেয়র কাদায় না নেমে কাউন্সিলরের হাত থেকে মাইক নিয়ে দাবির সমর্থনে বক্তব্য দেন।

পৌর মেয়র একরামুল হক বলেন, বালুবাহী ১০ চাকার ট্রাকের কারণে রাস্তা দ্রুত নষ্ট হচ্ছে। উপজেলা সমন্বয় কমিটির সভায় তিনি এই সড়ক সংস্কারের জন্য বলেছেন। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এই রাস্তার কাজ শুরুর প্রতিশ্রুতি দেন মেয়র। তিনি অবরোধ তুলে নেওয়ারও অনুরোধ জানান। শেষে মেয়রের অনুরোধে অবরোধ তুলে নেন আন্দোলনকারীরা।

এ বিষয়ে চারঘাট উপজেলা প্রকৌশলী নূরুল ইসলাম জানান, ছয় মাস আগে সড়কটি সংস্কার করা হয়। তখন এই সড়কে এক সপ্তাহের জন্য বালুর ট্রাক চলাচল বন্ধ রাখার জন্য অনুরোধ করেছিলেন, কিন্তু কেউ তাদের কথা শোনেননি। ফলে সড়কটি আবার নষ্ট হয়ে যায়। সারদা ট্রাফিক মোড় থেকে ৫০ মিটার রাস্তার কাজ বাকি আছে উল্লেখ করে। সেটি এক সপ্তাহের মধ্যে শুরু হবে বলে জানান প্রকৌশলী।

ফেরদৌস সিদ্দিকী/এমএএস

 

Link copied