ক্ষেতলাল পৌরসভা নির্বাচন

স্কুলমাঠে খেলা চলাকালে মোটরসাইকেল শোডাউন, আতঙ্কিত শিক্ষার্থীরা

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, জয়পুরহাট

১৩ জুন ২০২২, ০৮:২২ এএম


স্কুলমাঠে খেলা চলাকালে মোটরসাইকেল শোডাউন, আতঙ্কিত শিক্ষার্থীরা

জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থিতা জানান দিতে বিধি ভেঙে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুল হান্নান মিঠু দেড় শতাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে শোডাউন করেছেন।

রোববার (১২ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ক্ষেতলাল উপজেলার বটতলী বাজার থেকে শোডাউন শুরু হয়ে পৌর শহর প্রদক্ষিণের সময় মোটরসাইকেলের বহর ক্ষেতলাল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠের ভেতর ঢুকে পড়ে। এ সময় বিদ্যালয় মাঠে প্রাথমিক পর্যায়ে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলা চলছিল। মোটরসাইকলের বহর দেখে শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। মোটরসাইকেলের বহর বিদ্যালয় মাঠের এক পাশে ১০-১৫ মিনিট অবস্থানের পর সেখান থেকে চলে যায়। 

পৌরসভা নির্বাচন আচরণ বিধিমালা-২০১৫ এর ২ ধারার ৬ অনুচ্ছেদ ও ১১ ধারার ২ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার তারিখ থেকে নির্বাচন পূর্ব সময়ে শোডাউন করতে পারবেন না। এছাড়া ১৩ ধারার ক অনুচ্ছেদ অনুয়ায়ী কোনো ট্রাক, বাস, মোটরসাইকেল, নৌযান, ট্রেন কিংবা অন্য কোনো যানবাহন সহকারে মিছিল বা মশাল মিছিল বা অন্য কোনো ধরনের মিছিল বের করতে পারবে না কিংবা কোনো ধরনের শো-ডাউন করতে পারবেন না।

Dhaka post

প্রত্যক্ষদর্শী, স্থানীয় ও উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচন কমিশন সচিবালয় গত ৬ জুন ক্ষেতলাল পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। আগামী ২৭ জুলাই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে ২৮ জুন মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। রির্টানিং কর্মকর্তা কর্তৃক মনোনয়পত্র যাচাই-বাছাইয়ের শেষ তারিখ ৩০ জুন। ৭ জুলাই প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন। 

ক্ষেতলাল উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান মিঠু পৌর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার অনেক আগ থেকেই মেয়র পদে দোয়া চেয়ে পোস্টার সাঁটিয়েছেন। তিনি মেয়র পদে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। রোববার বেলা ১১টার পর দেড় শতাধিক মোটরসাইকেলের বিশাল একটি বহর বের করে তিনি পৌর এলাকার বটতলী ও ক্ষেতলাল পৌরশহরে শো-ডাউন দেন। বেলা সাড়ে ১১টায় মোটরসাইকেলের বহরটি ক্ষেতলাল  উপজেলা পরিষদের প্রধান ফটকের সামনে ক্ষেতলাল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে ঢুকে পড়ে। তখন ওই মাঠে প্রাথমিক পর্যায়ে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলা চলছিল।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রাথমিকের একজন শিক্ষক বলেন, তিলাবদুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও শাখাহারুঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে খেলা চলছিল। এ সময় বিদ্যালয় মাঠে মোটরসাইকেলের বিশাল বহর ঢুকে। এতে শিক্ষার্থীরা হতভম্ব পড়েছিল। পরে অবশ্য খেলার ব্যাঘাত ঘটেনি। 

Dhaka post

ক্ষেতলাল শহরের বাসিন্দা শাহিন হোসেন বলেন, পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুল হান্নান মিঠু মোটরসাইকেল নিয়ে এলাকায় শো-ডাউন করেছেন। এতে ক্ষেতলাল পৌরশহরের প্রধান সড়কে কিছু সময়ের জন্য যানজট সৃষ্টি হয়েছিল। এখন প্রায় দিনই আমাদের এরকম শোডাউনের দৃশ্য দেখতে হবে।

জানতে চাইলে মেয়র পদ প্রত্যাশী আব্দুল হান্নান মিঠু ঢাকা পোস্টকে বলেন, আমি ক্ষেতলাল পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। আজ প্রথমে অল্প মোটরসাইকেল নিয়ে শো-ডাউনে বের হয়েছিলাম। পরে আরও একশ থেকে দেড়শ মোটরসাইকেল যোগ হয়েছিল। শো-ডাউন আচরণবিধি লঙ্ঘনের মধ্যে পড়ে তা আমার জানা ছিল না। আর আমরা ভেবেছিলাম স্কুলের মাঠে মোটরসাইকেল রেখে চা দোকানে যাওয়া যাবে। কিন্তু পরীক্ষা ও খেলা চলায় আমরা চলে আসি।

ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন ইয়াজদানী বলেন, মেয়র পদ প্রত্যাশী আব্দুল হান্নান মিঠু মোটরসাইকেলের শো-ডাউন করেছেন। আমরা বিষয়টি আগে জানতে পারিনি। আচরণবিধি লঙ্ঘন করে শো-ডাউন করার বিষয়টি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে।

ক্ষেতলাল উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আনিছার রহমান ঢাকা পোস্টকে বলেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর শো-ডাউন করা যাবে না। যদি কেউ শো-ডাউন করে তা নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করা হবে। 

চম্পক কুমার/এসপি

Link copied