ইমিগ্রেশনে গিয়েই পুলিশের হাতে ধরা মামলার আসামি ইকবাল

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, নোয়াখালী

০২ জুলাই ২০২২, ০১:০৭ পিএম


ইমিগ্রেশনে গিয়েই পুলিশের হাতে ধরা মামলার আসামি ইকবাল

বিদেশে পালিয়ে যাওয়ার সময় বিমানবন্দর থেকে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের ইকবাল হোসেন সাইফুলকে (৩২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিনি বেগমগঞ্জের আওয়ামী লীগ নেতা আবু ছায়েদ ভূঁইয়া রিপনকে (৪৮) কুপিয়ে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ও মামলার দ্বিতীয় অভিযুক্ত।

শুক্রবার (১ জুলাই) সন্ধ্যায় রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ইমিগ্রেশন পুলিশের সহায়তায় তাকে গ্রেপ্তার করে বেগমগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের একটি দল।

ইকবাল হোসেন সাইফুল বেগমগঞ্জ উপজেলার মীর ওয়ারিশপুর ইউনিয়নের তালুয়া চাঁদপুর গ্রামের তবারক উল্যার ছেলে।

বিষয়টি ঢাকা পোস্টকে নিশ্চিত করেছেন বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জায়েদুল হক রনি।

তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে মূল পরিকল্পনাকারী সাইফুল ইসলামকে বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে বিচারিক আদালতে পাঠানো হয়েছে তাকে। মামলায় এখন পর্যন্ত চার আসামি কারাগারে আছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ইকবাল হোসেন সাইফুল আওয়ামী লীগ নেতা রিপন হত্যা মামলার ২ নং এজহারভুক্ত আসামি ও হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী। শুক্রবার (১ জুলাই) সন্ধ্যায় পালিয়ে বিদেশ যাওয়ার সময় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ইমিগ্রেশন পুলিশের সহায়তায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ২৭ অক্টোবর ভোর রাতে বেগমগঞ্জ উপজেলার মীরওয়ারিশপুর ইউনিয়নের তালুয়া চাঁদপুর গ্রামের নিজ বাড়ির সামনে আওয়ামী লীগ নেতা আবু ছায়েদ ভূঁইয়া রিপনকে (৪৮) কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরে ২৯ অক্টোর তার স্ত্রী পারভিন আক্তার বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ মডেল থানা মামলা করেন।

মৃত রফিক উল্লাহর ছেলে নিহত আবু ছায়েদ ভূঁইয়া রিপন নোয়াখালী-ঢাকা রুটের বাস লালসবুজ পরিবহনে ম্যানেজার হিসেবে কাজ করতেন এবং মীরওয়ারিশপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

হাসিব আল আমিন/এনএ

Link copied