ভোলায় ১০ চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৭

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, ভোলা 

২৯ জুলাই ২০২২, ১০:১৩ পিএম


ভোলায় ১০ চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৭

ভোলায় ১০টি চোরাই মোটরসাইকেলসহ চোরচক্রের ৭ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২৯ জুলাই) সন্ধ্যায় ভোলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন ভোলা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ফরহাদ সরদার। 

তিনি জানান, গত ২৮ জুন (বৃহস্পতিবার) ভেলুমিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (এসআই) মো. গোলাম মোস্তফা ও এসআই রাজিব হোসেন ফোর্সসহ মাদকদ্রব্য উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করেন। 

এ সময় ভোলার ভেলুমিয়া থেকে মোটরসাইকেল চোরচক্রের মূল হোতা মো. জিয়াকে (২৬) গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ভোলা সদরের ভেদুরিয়া ইউনিয়নের আব্দুর রহিমের ছেলে গ্রেপ্তার জিয়ার কাছ থেকে মোটরসাইকেল চুরির বিভিন্ন তথ্য উদঘাটন করা হয়।

dhakapost

সেসব তথ্যের ভিত্তিতে ভোলা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ফরহাদ সরদারের নেতৃত্বে ভোলা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনায়েত হোসেনের সহযোগিতায় বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ১০টি চোরাই মোটরসাইকেলসহ চোরচক্রের ৭ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এসব মোটরসাইকেলের আনুমানিক মূল্য ১৩ লাখ ১০ হাজার টাকা।

গ্রেপ্তার বাকিরা হলেন ভোলা সদরের আলিনগরের শামসুদ্দিনের ছেলে মো. সোহাগ (২৩), উকিলপাড়া এলাকার মৃত মোফাজ্জেলের ছেলে মো. রাসেল (৪৩), চর ভেদুরিয়ার মো. শহিদের ছেলে মো. জাকির পণ্ডিত (৩৯), মধ্য ভেদুরিয়ার শাহে আলম ফরাজীর ছেলে মো. সালাউদ্দিন (২৮), পশ্চিম ইলিশার আবুল বাশারের ছেলে মো. আলী আজগর (২৫) ও চর ভেদুরিয়ার মৃত মফিজল হকের ছেলে মো. রাকিব (২৭)। 

এদের সবার বিরুদ্ধে মোটরসাইকেল চুরি, মোটরসাইকেলের ইঞ্জিন নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর পরিবর্তন ও ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করাসহ বিভিন্ন অপরাধে ভোলা সদর মডেল থানায় মামলা করা হয়েছে।

প্রেস কনফারেন্সে ভোলা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনায়েত হোসেন ও অপারেশন অফিসার মো. রাজিব হোসেনসহ ভোলার প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রতিনিধি/আরআই

Link copied