কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় ৪ জেএমবি সদস্যের যাবজ্জীবন

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া

১১ আগস্ট ২০২২, ০২:২০ পিএম


কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় ৪ জেএমবি সদস্যের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক মীর সানাউর রহমানকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে চার জেএমবি সদস্যের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদেরকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) দুপুরে কুষ্টিয়া অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. তাজুল ইসলাম এ রায় দেন।

আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা- কুষ্টিয়া সদর উপজেলার খাজানগর পূর্বপাড়ার রহমান ব্যাপারীর ছেলে  আজিমুল ইসলাম, একই উপজেলার খাজানগর  মাদ্রাসাপাড়ার আজিজুল হক খানের ছেলে সাইফুল ইসলাম খান, কবুরহাট এলাকার আব্দুস সামাদ সরদারের ছেলে জয়নাল সরদার ও দৌলতপুর উপজেলার পূর্ব রামকৃষ্ণপুর গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে সাইফুদ্দিন কাজী।

রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপ্রাপ্তরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর পরই তাদেরকে পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ২০ মে সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে রোগী দেখার জন্য কুষ্টিয়া শহরের পূর্ব মজমপুর এলাকায় নিজ বাসা থেকে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক মীর সানাউর রহমান তার বন্ধু সাইফুজ্জামানকে সঙ্গে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে বটতৈল শিশির মাঠ এলাকায় তার বাগান বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন। পথিমধ্যে ৯টা ৫০ মিনিটে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল শিশিরের মাঠের নুমাগাড়ার মোড়ে পৌঁছালে সানাউর রহমানকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেন আসামিরা। এ ঘটনায় নিহতের ভাই মীর আনিছুর রহমান আসামিদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা করেন। 

মামলার তদন্ত শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা আসামিদের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালের ৬ জুলাই আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। এরপর আদালত এ মামলায় সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন। নির্ধারিত ধার্য তারিখে আদালতের বিচারক মামলার আসামিদের শাস্তির আদেশ দেন। 

আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী বলেন, হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক মীর সানাউর রহমান হত্যা মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় চারজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। 

রাজু আহমেদ/আরএআর

Link copied