ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস শুরু করে চুরি করেন তারা

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, জয়পুরহাট

১১ আগস্ট ২০২২, ০৩:১৪ পিএম


ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস শুরু করে চুরি করেন তারা

জয়পুরহাট জেলা শহরের কেন্দ্রীয় মসজিদ মার্কেটের একটি মোবাইলের দোকানে চুরির ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ২৪টি স্মার্টফোন উদ্ধার করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে প্রেস ব্রিফ্রিং করে জয়পুরহাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম আলমগীর জাহান এসব তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে গতকাল বুধবার সকালে কেন্দ্রীয় মসজিদ মার্কেটের লাবীব টেলিকম নামের একটি মোবাইলের দোকানে চুরির ঘটনা ঘটে। এতে নগদ দুই লাখ ৩২ হাজার টাকা ও ৮৪টি স্মার্টফোন চুরি হয়েছে বলে থানায় মামলা করেছেন দোকানটির মালিক রুহুল আমিন।

গ্রেপ্তাররা হলেন- কুমিল্লার হোমনা থানার চান্দেরচর গ্রামের মৃত মনির ভূঁইয়া মো. মিজান (২২), একই জেলার মুরাদনগর উপজেলার যাত্রাপুর গ্রামের মৃত জাহাঙ্গীরের ছেলে মো. শুকুর (২২), চট্টগ্রামের হালিশহর থানার কেতুয়া মসজিদ রামপুরা এলাকার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে মো. সজিব (২৮) ও কুমিল্লার মুরাদনগরের দড়িকান্দি গ্রামের আঃ সাত্তারের ছেলে মো. আদিস (২২)।

দোকান মালিক-কর্মচারী ও পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় দোকান বন্ধ করা হয়। পর দিন বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় কর্মচারীরা দোকান খুলতে গিয়ে দেখেন, দোকান ঘরের উত্তর দিকের সার্টারের দরজায় নতুন একটি তালা দেওয়া আছে। কর্মচারীরা পশ্চিম দিকের সার্টারের দরজা খুলে দোকান ঘরের ভেতরে মালামাল এলোমেলো অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখতে পায়। এ সময় তারা দেখেন দোকানে একটি স্মার্ট ফোনও নেই। ক্যাশে টাকাও নেই। পরে পুলিশকে ঘটনাটি জানানো হয়। পুলিশ এসে দোকান পরির্দশন করেন।

এদিকে বুধবার সকাল ৯টায় জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের নিয়মিত অভিযান পরিচালনার সময় জয়পুরহাট-মেকামতলা আঞ্চলিক মহাসড়কের কালাই উপজেলায় ২৪টি স্মার্ট ফোনসহ ৪ ব্যক্তিকে আটক করে। পরে আটকদের জয়পুরহাট থানায় হস্তান্তর করা হয়।

ওসি আলমগীর জানান বলেন, চোর চক্ররা নির্দিষ্ট কোনো এলাকায় বসবাস করেন না। তারা বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে বস্তি এবং ক্রাইম জোন এলাকা বেছে নিয়ে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করেন। এরপর বড় ধরনের ডাকাতি কিংবা চুরি করে পালিয়ে যান। জয়পুরহাটে তিনমাস আগে এসে চুরির পরিকল্পনা করে তারা।
 
তিনি বলেন, চুরির ঘটনায় দোকান মালিক রুহুল আমিন বাদী হয়ে মামলা করেছেন। চোর চক্রের চারজন গ্রেপ্তার আছে। ২৪টি ফোন উদ্ধার হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

চম্পক কুমার/এমএএস

Link copied