আমি কীভাবে বাকিটা জীবন কাটাব

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার

১৬ আগস্ট ২০২২, ০৪:১৬ পিএম


আমি কীভাবে বাকিটা জীবন কাটাব

২০১৮ সালে সৈয়দা রুবি আক্তারের স্বামী মারা যান। তার পাঁচ বছর বয়সী এক ছেলে রয়েছে। নিজের ভাগ্যবদলের জন্য ২০১৯ সালে ‘রুবি বিউটি পার্লার’ নামের ব্যবসা শুরু করেন। ভালোই চলছিল ব্যবসা। কিন্তু রাতের আঁধারে দুর্বৃত্তদের আগুনে কেড়ে নিল তার টিকে থাকার শেষ সম্বলটুকু।

সৈয়দা রুবি আক্তার বলেন, স্বামীর মারা যাওয়ার পর আমি আমার এলাকার বাজারে অনেক কষ্ট করে একটি বিউটি পার্লার চালু করি। এই আয়-রোজগার দিয়ে আমার কষ্টের জীবন ভালোই চলছিল। তিনি অভিযোগ করে বলেন, পূর্বশত্রুতার জের ধরে বাজারের বাসিন্দা ছয়ফুল মিয়া আমার পার্লারের দেয়াল ভেঙে পেট্রল দিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। এখন আমার সব শেষ। আমি কীভাবে বাকিটা জীবন কাটাব?

তিনি আরও বলেন, আমার পার্লারে ১০ লাখ টাকার মালামাল ছিল। আগুনে পুড়ে সব ছাই হয়ে গেছে। আমার পার্লারের কী দোষ ছিল? কেন পার্লারে আগুন লাগিয়ে দেবে? আমার এত বড় সর্বনাশ করতে পারল সে?

সোমবার (১৬ আগস্ট) দিবাগত রাত আড়াইটায় মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার পাঁচগাও বাজারের রুবি বিউটি পার্লারে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। আশপাশের লোকজন আগুন দেখতে পেয়ে ফায়ার সার্ভিসকে কল করেন। পরে ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। 

রাজনগর ফায়ার সার্ভিসের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন অফিসার আলী হোসেন ঢাকা পোস্টকে বলেন, ৯৯৯-এ খবর পাওয়ার পর আমরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনি। আমরা যাওয়ার আগে বিউটি পার্লারটি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। কীভাবে আগুন লাগল, সেটা তদন্ত করে দেখতে হবে। এ ছাড়া সঠিক করে বলা যাবে না। ভুক্তভোগী যদি আবেদন করেন, তাহলে তদন্ত কমিটি গঠন করে সঠিক কারণ বের করা হবে।

রাজনগরের পাঁচগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, তাদের কারও সঙ্গে হয়তো বিরোধ ছিল বলে শোনা যাচ্ছে। মামলা-মোকাদ্দমাও চলছে। একজন নারী বিউটি পার্লার পরিচালনা করে স্বাবলম্বী হচ্ছিলেন। রাতে আগুন দিয়ে তা পুড়ে দেয়।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানার জন্য অভিযুক্ত ছয়ফুল মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে তার স্ত্রী দিলারা বেগম বলেন, আমার স্বামীর মোবাইল নম্বর বন্ধ। তিনি এই কাজে জড়িত নন। তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দেওয়া হচ্ছে।

রাজনগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিনয় ভূষণ রায় বলেন, এ নিয়ে এখনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রাজনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াংকা পাল ঢাকা পোস্টকে বলেন, আমি বিষয়টির খোঁজ নিচ্ছি। আমাদের উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে যতটুকু সম্ভব সহযোগিতা করা হবে।

ওমর ফারুক নাঈম/এনএ

Link copied