মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে তিনজনের যাবজ্জীবন

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, নারায়ণগঞ্জ

১৬ আগস্ট ২০২২, ০৫:৩১ পিএম


মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে তিনজনের যাবজ্জীবন

নারায়ণগঞ্জে এক মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার ছয় বছর পর তিন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। দুই আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক নাজমুল হক শ্যামল আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় দেন। 

আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) রকিব উদ্দিন আহমেদ ঢাকা পোস্টকে রায়ের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- ইব্রাহিম ওরফে মনা, হৃদয় ও জহিরুল ইসলাম ওরফে টিটু। মামলায় খালাস পেয়েছেন হাবিব ও শাওন।

পিপি রকিব উদ্দিন আহমেদ বলেন, ২০১৫ সালের ১০ অক্টোবর ফতুল্লা থানার এনায়েতনগরের ধর্মগঞ্জ এলাকায় রাজিম উদ্দিনের মালিকানাধীন বাড়ির দ্বিতীয় তলার ৭ম শ্রেণির মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন আসামিরা। ঘটনার পর দিন নিহতের মা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। পরে ওই মামলায় সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আদালত তিন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও দুই আসামিকে খালাস দিয়েছেন। মামলায় মোট ১১ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন। রায়ে কিছুটা বিলম্ব হলেও রাষ্ট্রপক্ষ ও বাদীপক্ষ এতে সন্তুষ্ট।

আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান জানান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই ইকবাল পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেন। মামলায় আদালত ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে রায় দিয়েছেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আরএআর

Link copied