শ্যালকের শাবলের আঘাতে প্রাণ হারালেন প্রবাসী

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

১৬ আগস্ট ২০২২, ০৬:৫৭ পিএম


শ্যালকের শাবলের আঘাতে প্রাণ হারালেন প্রবাসী

প্রবাসে থেকে আয়ের টাকা স্ত্রীর কাছে পাঠাতেন কেতাব আলী। সেই টাকায় তার শ্বশুর জমি কিনে তিন সন্তানকে ভাগ করে দেন। দেশে ফিরে কেতাব আলী রোজগারের টাকার হিসাব চাইলে বেরিয়ে আসে এমন তথ্য।

সব শুনে শ্বশুরের কাছে তার আয়ের টাকায় কেনা জমি দাবি করেন কেতাব আলী। কিন্তু শ্বশুর তা দিতে নারাজ। এ নিয়ে উভয় পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিনের কোন্দল চলে আসছে। পরে শ্বশুরের কেনা জমি নিজের দাবি করে চাষাবাদ করতে গেলে শ্যালকের শাবলের আঘাতে কেতাব আলী নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বরিশাল জেলার মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার কাজীরহাট থানার জয়নগর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় শ্যালককে আটক করা হলেও শ্বশুর সেরাজ আলী পরিবার নিয়ে পালিয়ে গেছেন।

বিষয়টি ঢাকা পোস্টকে নিশ্চিত করেছেন কাজীরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জোবায়ের।

নিহত কেতাব আলী সরদার (৫০) কাজীরহাট থানার আন্ধারমানিক ইউনিয়নের আন্ধারমানিক গ্রামের মৃত বেলায়েত সরদারের ছেলে।

স্বজনদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, প্রবাস থেকে কেতাব আলী স্ত্রীর কাছে টাকা পাঠাতেন। সেই টাকা শ্বশুর সেরাজ আলী নিজ নামে জমি কিনে তার তিন ছেলে ও এক মেয়ের মধ্যে বণ্টন করে দেন। এ নিয়ে কেতাব আলীর সঙ্গে শ্বশুর পরিবারের বিরোধ শুরু হয়। বিরোধীয় জমিতে মঙ্গলবার সকালে চাষাবাদ করতে যান কেতাব আলী।

এ সময় শ্বশুর সেরাজ আলী ও শ্যালক টিপুসহ অন্যরা এসে বাধা দিলে দুপক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। এতে কেতাব আলী নিহত ও শ্যালক টিপু গুরুতর আহত হন।

কাজীরহাট থানার ওসি মো. জোবায়ের বলেন, হত্যায় অভিযুক্ত শ্যালক টিপু হাওলাদারকে আমরা আহত অবস্থায় আটক করেছি। তিনি নিহত কেতাব আলীর দায়ের কোপে আহত হন। নিহত ব্যক্তির শ্বশুর পালিয়ে গেছেন। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

সৈয়দ মেহেদী হাসান/এনএ

Link copied