চুরি করা ছাগলের মাংস কাটার সময় আটক, ২ জনকে গণপিটুনি

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, চুয়াডাঙ্গা

১৫ অক্টোবর ২০২২, ১২:৫১ পিএম


চুরি করা ছাগলের মাংস কাটার সময় আটক, ২ জনকে গণপিটুনি

চুয়াডাঙ্গায় ছাগল চুরি করে জবাই করার সময় গ্রামবাসীর হাতে দুজন আটক হয়েছেন। পরে উত্তেজিত জনতা গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে। শুক্রবার (১৪ অক্টোবর) দিবাগত রাত ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্তরা হলেন- চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার শঙ্করচন্দ্র ইউনিয়নের জালশুকা গ্রামের আবু বক্করের ছেলে আসাদুল ইসলাম (৪০) ও একই গ্রামের আবু বড় মিয়ার ছেলে লালন (৩৮)।

পুলিশ জানায়, রাত আড়াইটার দিকে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে সরোজগঞ্জ পুলিশ ক্যাম্পের উপ-সহকারী পরিদর্শক (এএসআই) আলমগীর হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে জালশুকা গ্রামে যায়। সেখানে গ্রামবাসীর গণধোলাইয়ের শিকার আহত দুজনকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার রাতে জালশুকা গ্রামের এরশাদ আলীর ছেলে দিপুর একটি ছাগল চুরি হয়। সেই রাতেই খোঁজাখুঁজি করতে থাকে দিপুসহ এলাকার লোকজন। এরপর গ্রামের একটি বাগানের মধ্যে আসাদুল ও লালনকে ছাগল জবাই করে মাংস কাটার কাজ করতে দেখে এলাকাবাসী।

পরে তাদের হাতেনাতে আটক করে গণধোলাই দেওয়া হয়। এর মধ্যে কেউ একজন জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন করে পুলিশকে বিষয়টি জানায়।  সরোজগঞ্জ পুলিশ ক্যাম্পের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত দুজনকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

সরোজগঞ্জ পুলিশ ক্যাম্পের উপ-সহকারী পরিদর্শক (এএসআই) আলমগীর হোসেন ঢাকা পোস্টকে বলেন, গ্রামের দিপুর বাড়ি থেকে ছাগল চুরির পর একটি বাগানে জবাই করে মাংস কাটছিল আসাদুল ও লালন। এ সময় ছাগল মালিকসহ গ্রামবাসী তাদের হাতেনাতে আটক করে গণধোলাই দেয়। অনুমানিক রাত ৩টার দিকে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯- থেকে ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মারভিন অনিক চৌধুরী ঢাকা পোস্টকে বলেন, ভোর অনুমানিক ৪টার পর আহত অবস্থায় দুজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসে পুলিশ সদস্যরা। তাদের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত রয়েছে। তবে তারা শঙ্কামুক্ত নয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান ঢাকা পোস্টকে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় পুলিশ দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। শনিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত থানায় কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। 

আফজালুল হক/এসপি 

Link copied