বিল দিতে না পারায় নবজাতক বিক্রি : বাবাসহ ৩ জনকে কোর্টে চালান

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

২১ নভেম্বর ২০২২, ১২:১৪ পিএম


বিল দিতে না পারায় নবজাতক বিক্রি : বাবাসহ ৩ জনকে কোর্টে চালান

মায়ের কোলে সেই নবজাতক

রাজশাহীতে নবজাতক বিক্রির ঘটনায় বাবাসহ তিনজনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। সোমবার (২১ নভেম্বর) বেলা ১১টায় রাজশাহী আদালতে তাদের পাঠানো হয়। এর আগে রোববার রাতে নবজাতকের মা জান্নাতুন খাতুন বাদী হয়ে স্বামীসহ তিনজনকে আসামি করে মানবপাচার আইনে মামলা করেন।

মামলার আসামিরা হলেন- জান্নাতুনের স্বামী রহিদুল ইসলাম (৪০), নগরীর দাশপুকুর এলাকার অয়েজউদ্দিনের ছেলে তরিকুল এবং কাঁকনহাট এলাকার সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী বিউটি। 

রাজপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিদ্দিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এ ঘটনায় রোববার রাতে একটি মামলা হয়েছে। 

নবজাতক বিক্রির দায় স্বীকার করে রহিদুল ইসলাম জানান, হাসপাতালের বিল পরিশোধ করার মতো টাকা ছিল না তার কাছে। তাই নার্সের মাধ্যমে সন্তানকে বিক্রি করেছেন। তাকে ২৪ হাজার টাকা দেওয়া হয়। নার্স ৩০ হাজার টাকায় শিশুটিকে বিক্রি করেছে।

প্রসঙ্গত, গত ১০ নভেম্বর রাজশাহী নগরীর লক্ষ্মীপুরের কেয়ার নার্সিং হোমে একটি কন্যাশিশুর জন্ম দেন জান্নাতুন। জন্ম নেওয়ার দুই দিনের মাথায় শিশুটিকে ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন বাবা রহিদুল। শিশুটি নার্সের কাছ থেকে তরিকুল আহসান নামে এক ব্যক্তি কিনে নেন। এরপর তিনি গোলাম শাহিনুরের কাছে বিক্রি করেন। শিশুটির বৈধ কাগজপত্র না থাকায় শাহিনুর শিশুটিকে ফিরিয়ে দেন। পরে তরিকুল গোদাগাড়ীর কাঁকনহাটে নবজাতককে এক নারীর কাছে বিক্রি করেন। ওই নারী শিশুটিকে নিয়ে তানোরে চলে যান। রোবাবর সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে পুলিশ প্রথমে কাঁকনহাটে ও পরে তানোরে অভিযান চালিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে। পরে নবজাতককের বাবা এবং ক্রেতাদের হেফাজতে নেয় পুলিশ।

আরকে

Link copied