রক্তের বদলা হিসেবে আমরা গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করব : নজরুল ইসলাম খান

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি

কুমিল্লা 

২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৩৪ এএম


রক্তের বদলা হিসেবে আমরা গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করব : নজরুল ইসলাম খান

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, বাঞ্ছারামপুরে পুলিশের গুলিতে নিহত ছাত্রদলের নেতা নয়ন মিয়ার রক্ত বৃথা যেতে দেব না। তার রক্তের বদলা হিসেবে আমরা দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করব। নিশ্চয়ই আমরা আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করব। নিশ্চয়ই আমরা আমাদের নেতা, আমাদের ভাই তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনব।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) বিকেলে কুমিল্লা টাউনহল মাঠে বিএনপির কুমিল্লা বিভাগীয় গণসমাবেশের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপির সিনিয়র এ নেতা বলেন, আমরা দেশের সাধারণ মানুষ আজ ভালো নেই। হালাল উপার্জন দিয়ে আজ কেউই দু’বেলা দুমুঠো খাওয়ার অবস্থায় নেই। প্রতিদিন জিনসের দাম বাড়ছে। পত্রিকায় এসেছে গোটা এশিয়া মহাদেশে গরুর মাংসের দাম বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি। বাংলাদেশের খাদ্যদ্রব্যের দাম মানুষের ক্রয়সীমার বাইরে চলে গেছে। উপার্জন বাড়ে না, প্রতিদিন জিনিসের দাম বাড়ে। তার প্রতিবাদ করতে গেলে বিএনপির নেতাদের গুলি করে করে মারা হচ্ছে। এ পর্যন্ত আমাদের আট জন সহকর্মীকে গুলি করে হত্যা করেছে। সরকার যতই হত্যা করছে, ততই আরও লোক সমাগম বেশি হচ্ছে, এটাই হচ্ছে বাস্তবতা। এই বাস্তবতা সরকারে যারা আছে তাদের মাথা খারাপ করে দিচ্ছে।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, দুর্নীতির একটা সীমা থাকে, পত্রিকায় দেখলাম— ঢাকা-ময়মনসিংহ যে রোড। এই মহাসড়কের জমি ব্যাংকে দিয়ে ১৫ কোটি নিয়ে গেছে আওয়ামী লীগের নেতারা। আজ ক্ষমতাসীন দলের জেলা পর্যায়ের একজন নেতা দুই হাজার কোটি টাকা লুট করেছে। জেলা পর্যায়ের একজন নেতা যদি এত টাকা লুট করে, অন্য নেতারা কি পরিমাণ লুট করছে। এভাবে যদি লুট করা হয় রক্ত দিয়ে স্বাধীন করা এই দেশটা কি টিকবে? এটা হতে দেওয়া যায় না, তাই আমরা আজ পরিবর্তন চাই।

তিনি আরও বলেন, তারা বলে আমাদের নেত্রী এতিমের টাকা লুট করেছে, আমাদের নেতা তারেক রহমান টাকা পাচার করে বিদেশে অবস্থান করছে। আমরা বলি তারা কেউ কোনো অপরাধ করেননি। আপনারা তাদের ভয় পান। ভয় পেয়ে তাদের দেশছাড়া করার জন্য মিথ্যা মামলা দিয়ে ফরমায়েশি রায় দিয়ে আপনারা জেলে রেখেছেন, দণ্ড দিয়েছেন। আমরা আপনাদের দণ্ড মানি না।

শনিবার কুমিল্লা বিভাগীয় বিএনপির গণসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ডক্টর খন্দকার মোশাররফ হোসেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস এবং বিএনপির ভাইস প্রেসিডেন্ট বরকত উল্যাহ বুলুসহ কেন্দ্রীয় বিএনপির অন্য নেতারা।

গণসমাবেশে কুমিল্লা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব ইউসুফ মোল্লা টিপুর সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক হাজী আমিনুর রশিদ ইয়াসিন। 

আরিফ আজগর/এসএসএইচ

Link copied