সেতু আছে নেই সংযোগ সড়ক, ৩ বছরেও কমেনি মানুষের ভোগান্তি

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, মুন্সীগঞ্জ

২৮ নভেম্বর ২০২২, ১১:০৩ এএম


সেতু আছে নেই সংযোগ সড়ক, ৩ বছরেও কমেনি মানুষের ভোগান্তি

জনদুর্ভোগ কমাতে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার আলীপুর খালের ওপর নির্মাণ করা হয়েছিল একটি সেতু। কিন্তু সেতুর দুই পাশে সংযোগ সড়ক না থাকায় ৩ বছরেও মানুষের ভোগান্তির অবসান হয়নি। রাস্তার অভাবে দুর্ভোগে রয়েছেন স্কুল-কলেজ ও মাদরাসাগামী শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ।

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার ভবেরচর ইউনিয়নের আলীপুর গ্রাম সংলগ্ন খালে নির্মিত সেতুর দুই পাশ থেকে সংযোগ সড়ক বিচ্ছিন্ন হয়ে আছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন আলীপুরসহ আশপাশের লোকজন।

জানা গেছে, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অধিদপ্তরের আওতায় ২০১৯ সালে আলীপুর গ্রামের খালের ওপর নির্মাণ করা হয় একটি সেতু। কিন্তু ৩ বছর আগে ওই সেতুর সংযোগ সড়কের কিছু অংশ বৃষ্টির পানিতে ভেঙে যায়। এলাকাবাসীর অভিযোগ, ভেঙে যাওয়া সড়ক মেরামত করার জন্য জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে উপজেলা প্রশাসনের কাছে একাধিকবার আবেদন করেও কোনো লাভ হয়নি।

স্থানীয়রা জানায়, ব্রিজ থাকলেও রাস্তা না থাকায় তা ব্যবহার করা যাচ্ছে না। ফলে মহাসড়ক দিয়ে দুই-তিন  কিলোমিটার পথ ঘুরে যাতায়াত করতে হচ্ছে।

আলীপুর গ্রামের বাসিন্দা মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, বর্ষাকালে পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সেতুর দুপাশ তলিয়ে যায়। আধুনিক যাতায়াত ব্যবস্থা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় গ্রাম। শুকনো মৌসুমেও সেতুর পাশে সড়ক না থাকায় এ গ্রাম থেকে বাইসাইকেল নিয়েও চলাচল করা যায় না।

আলীপুর এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা বৃদ্ধ রমজান মিয়া জানান, নির্বাচন এলে চেয়ারম্যান-মেম্বাররা ভোট নেওয়ার জন্য এলাকায় আসে। ভোটের পর আর তাদের দেখা যায় না।

ভবেরচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সাহিদ মো. লিটন জানান, ব্রিজের দুই পাশে গাইডওয়াল নির্মাণসহ রাস্তাটি সংস্কারের জন্য বরাদ্দের চেষ্টা করা হচ্ছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তাইজুল ইসলাম বলেন, ব্রিজের দুই পাশে ব্যক্তি মালিকানাধীন খাল থাকায় সংযোগ সড়কটি রক্ষা করা যাচ্ছে না। ব্রিজের উভয় পাশে গাইডওয়াল নির্মাণ করা হলে এটি ব্যবহার উপযোগী হবে। তাই সড়ক নির্মাণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

ব.ম শামীম/এসপি

Link copied