চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ উপ-নির্বাচন

বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মীকে মারধরের অভিযোগ নৌকার বিরুদ্ধে

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ১০:০৫ এএম


বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মীকে মারধরের অভিযোগ নৌকার বিরুদ্ধে

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (গোমস্তাপুর, নাচোল, ভোলাহাট) আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র ও আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মীদের মারধর ও ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আলী সরকারের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ও তার ছেলে মো. আহসান উদ্দীন সরকার। 

গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুর পুরাতন বাজারে নিজ বাসভবনে প্রার্থীর পক্ষে তিনি এসব অভিযোগ করেন। আপেল প্রতীকের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট মো. আহসান উদ্দীন সরকার বলেন, ২২ জানুয়ারি ভোলাহাট উপজেলার জামবাড়িয়া ইউনিয়নের বড়গাছি বাজারে স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মী সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুস সামাদ আপেল প্রতীকের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলেন এবং ভোটারদের ভয়ভীতি দেখান। 

তিনি আরও বলেন, গত সোমবার গোমস্তাপুর উপজেলার পার্বতীপুর ইউনিয়নের শেরপুর গ্রামের আপেল প্রতীকের কর্মী মো. হাবিবুল্লাহর ওপর আওয়ামী লীগের কর্মী মেহেদী, আনারুল, মিলন অতর্কিত হামলা করে। স্থানীয়রা পরে তাকে উদ্ধার করে গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। আপেল প্রতীকের কর্মী-সমর্থকরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। 

সংবাদ সম্মেলনে মো. আহসান উদ্দীন সরকার বলেন, গোমস্তাপুর উপজেলার পাবর্তীপুর ইউনিয়নের আড্ডা বাজার ও জিনারপুর বাজারে এবং রাধানগর ইউনিয়নের ডুবার মোড়ে আপেল প্রতীকের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলো হয়েছে ও পোস্টার নামিয়ে ফেলেছে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জিয়াউর রহমানের সমর্থকরা। আমরা রিটার্নিং কর্মকর্তাকে এসব বিষয় নিয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। 

তবে সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুহা. জিয়াউর রহমান। ঢাকা পোস্টকে তিনি বলেন, অভিযোগগুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। এ বিষয়ে শিগগিরই আমি সংবাদ সম্মেলন করে আমার বক্তব্য দেবো। 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মোতাওয়াক্কিল রহমান মুঠোফোনে ঢাকা পোস্টকে জানান, অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন রাজশাহী জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য মোহাম্মদ আলী সরকার। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে অন্য প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও জেলা আ.লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুহা. জিয়াউর রহমান, জাতীয় পার্টির প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের নাবীউল ইসলাম ও আ.লীগের বিদ্রোহী খুরশিদ আলম বাচ্চু, জাকের পার্টির প্রার্থী গোলাম মোস্তফা।


মো. জাহাঙ্গীর আলম/এনএফ

Link copied