শেখ হাসিনাকে নৌকা উপহার দিলে উন্নয়ন উপহার পাবেন : নানক

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, বগুড়া

২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ০৮:২৬ পিএম


শেখ হাসিনাকে নৌকা উপহার দিলে উন্নয়ন উপহার পাবেন : নানক

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ ছাড়া আমি বগুড়ায় আসিনি। শেখ হাসিনা চেয়েছেন তার মনোনীত প্রার্থীকে আপনারা নির্বাচিত করবেন। আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে আওয়ামী লীগ এবার ঐক্যবদ্ধ। বগুড়া-৬ (সদর) আসনে আপনারা শেখ হাসিনাকে নৌকা উপহার দিলে উন্নয়ন উপহার পাবেন।

বগুড়া-৬ আসনের উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকের পক্ষে জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে সর্বস্তরের পেশাজীবীদের নিয়ে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বুধবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেল ৫টার দিকে বগুড়া জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

তিনি আরও বলেন, আপনাদের ওপর এক অপ্রত্যাশিত উপনির্বাচন চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। আসন্ন নির্বাচনের মাত্র ১১ মাস আগে এই আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য চার বছর সব সুবিধা ভোগ করে পদত্যাগ করলেন।

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, বিএনপি-জামায়াত শেখ হাসিনার সরকারকে উৎখাত করতে সব ধরনের ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। এই সরকারকে দেশি-বিদেশি সব রকম ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে হয়েছে। মুখ থুবড়ে পড়া এক বাংলাদেশের দায়িত্ব নিয়েছিলেন শেখ হাসিনা। বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতা ছাড়ার পর দেশে চিকিৎসা, সড়ক ও বিদ্যুৎ কিছুই ছিল না। সেই সময় মানুষ স্বপ্ন দেখা বাদ দিয়েছিলেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল।

তিনি আরও বলেন, ২০১৪ সালেও নারকীয় তাণ্ডব চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত। আন্দোলনের নামে হাজার হাজার যানবাহন পুড়িয়েছে, শত শত মানুষকে হত্যা করেছে। তাদের তাণ্ডব থেকে সরকারি অফিসও বাদ যায়নি। পুলিশ ও বিজিবি সদস্যদেরও পিটিয়ে হত্যা করেছে এই সন্ত্রাসীরা। বগুড়ার মমতাজ ভাইয়ের বাড়ি ও পুলিশ স্টেশন পর্যন্ত বাদ যায়নি। সেই পরিস্থিতিও নিয়ন্ত্রণ করেছেন শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগের এই শীর্ষ নেতা বলেন, ১৯৭৩ সালের পর এবার সুবর্ণ সুযোগ হয়েছে নৌকাকে নির্বাচিত করার। সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর রাগেবুল আহসান রিপু বগুড়ায় স্থিতিশীলতা ও শান্তির সুবাতাস নিয়ে আসবেন। আপনাদের সবার জন্য এই নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরও বলেন, রংপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন সারা দেশের আওয়ামী লীগের জন্য বার্তা। খারাপ ফলাফল ও ব্যর্থতার জন্য রংপুর জেলা ও মহানগর কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে। সবকিছু শেখ হাসিনার নখদর্পনে রয়েছে। আপনারা শেখ হাসিনাকে নৌকা উপহার দিলে উন্নয়ন উপহার পাবেন। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়, বেতার ও অর্থনৈতিক অঞ্চল হবে বগুড়ায়।

বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনুর সভাপতিত্বে ও দপ্তর সম্পাদক আল রাজি জুয়েলের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ম. আব্দুর রাজ্জাক, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য সাখাওয়াত হোসেন সফিক, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মকবুল হোসেন মুকুল, অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুর রহমান দুলু, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ শাহাদৎ আলম ঝুনু, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নাসরিন রহমান প্রমুখ। 

আলমগীর হোসেন/এমজেইউ

Link copied