করোনাভাইরাস পরিস্থিতি- ফেনী

ফেনীতে করোনা রোগী বেড়েছে তিনগুণ

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, ফেনী

০৮ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৩৭

ফেনীতে করোনা রোগী বেড়েছে তিনগুণ

এক সপ্তাহের ব্যবধানে ফেনীতে করোনা রোগী বেড়েছে তিনগুণের বেশি। গত সপ্তাহে ফেনীতে ৩৬৭ জনের করোনা শনাক্ত হয় এবং মারা গেছেন একজন। এক সপ্তাহের ব্যবধানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৮৯৬ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ৪৮ জনের।

অপরদিকে ফেনীতে টিকা পেতে নিবন্ধন করেছেন ৫৯ হাজার ৮১০ জন। টিকা নিয়েছেন ৪৮ হাজার ৯০১ জন। নিবন্ধন করেও টিকা নেননি ১০ হাজার ৯০৯ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২৫৬ জন। বুধবার বিকেলে এসব তথ্য জানায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

স্বাস্থ্য বিভাগের দেওয়া তথ্য মতে নোয়াখালীর আব্দুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব ও ফেনী বক্ষব্যাধি ক্লিনিকে গত এক সপ্তাহে (১থেকে ৭ এপ্রিল) ফেনীর ৮২৭ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ৩৬৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এর আগের সপ্তাহে (২১-২৮ মার্চ) ৪১৯ জনের নমুনা পরিক্ষা করা হলে ১০০ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এ হিসেবে গত সপ্তাহের তুলনায় করোনা শনাক্তের হার তিন গুণের বেশি এবং নমুুনা পরীক্ষার হার দ্বিগুণ।

সর্বশেষ বুধবার (৭ এপ্রিল) ১২৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে ৪১ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

নতুন শনাক্তদের মধ্যে ফেনী সদরে ২২ জন, ছাগলনাইয়ায় ৩ জন, দাগনভূঞায় ৯ জন, সোনাগাজীতে ১ জন, পরশুরামে ৩ জন, ও ফুলগাজীর ৩ জন রয়েছে।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার প্রায় ১৭.৪৫ শতাংশ। ফেনীতে শনাক্ত ২ হাজার ৮৯৬ জন রোগীর মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত হয়েছে ফেনী সদরে ১ হাজার ২৭২ জন। শনাক্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে দাগনভূঞা উপজেলা। এ উপজেলায় শনাক্ত হয়েছে ৫০৫ জন। ছাগলনাইয়ায় ৩৭৮জন, সোনাগাজীতে ৩৪১ জন, পরশুরামে ১৯৩ জন ও ফুলগাজীতে ১৭০ জন। ফেনীর বাইরের ৩৬ জন রোগী রয়েছে।

শনাক্তকৃত করোনা রোগীর ৪৩.৯২ শতাংশ ফেনী সদরের। আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত জেলায় মৃত্যু হয়েছে ৪৮ জনের। এদের মধ্যে ৩৮ জন পুরুষ ও ৭ জন নারী রয়েছে। ফেনী সদরে সর্বোচ্চ ১৯জন, সোনাগাজীতে ১১জন, দাগনভূঞায় ৮জন, ছাগলনাইয়ায় ৬জন, পরশুরামে ৩জন ও ফুলগাজীর ১ জন রয়েছেন।

স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, আক্রান্তদের মধ্যে ২০জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি আছে। এর মধ্যে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ১৩ জন, ছাগলানইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩ জন, দাগনভূঞা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১ জন ও ফেনীর মেডিনোভা হাসপাতালে ৩ জন রোগী রয়েছে। ৫৩ হাজার ৪৫০ রোগী টেলিমেডিসিন সেবা নিয়েছেন।

ফেনী জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবুল খায়ের মিয়াজী জানান, হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৩০ শয্যার বিপরীতে ভর্তি আছেন ৫৬ জন । গত ২৪ ঘন্টায় ১৯ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। তিনি আরও জানান, গতকাল ৫৮টি নমুনার মধ্যে ২৫টি পজিটিভ এসেছে। অর্থাৎ প্রতি দুইটি নমুনার মধ্যে একটি পজিটিভ।

এদিকে ফেনীতে করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন নিতে নিবন্ধন করেও প্রায় ২০ শতাংশ মানুষ টিকা নেননি।

হোসাইন আরমান/ এমআইএইচ

Link copied