গভীর রাতে খাবার নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে তারা

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, ফরিদপুর

০৮ এপ্রিল ২০২১, ২২:৩৮

গভীর রাতে খাবার নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে তারা

অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে কমিউনিস্ট পার্টি ও ছাত্র ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সাত দিনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। কঠোর বিধিনিষেধে বিপাকে পড়েছে ফরিদপুরের দরিদ্র দিনমজুর, খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষ। এসব অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে কমিউনিস্ট পার্টি ও ছাত্র ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ। 

রান্না করা খিচুড়ি প্যাকেট ভর্তি করে গভীর রাতে শহরের বিভিন্ন স্থানে অসহায় মানুষগুলোর হাতে তুলে দিচ্ছেন ছাত্র ইউনিয়নের এক ঝাঁক তরুণ নেতাকর্মী। 

গত তিন দিন ধরে শহরের ভাঙা রাস্তার মোড়, নিউ মার্কেট এলাকা, বাসস্ট্যান্ড, রেলস্টেশনসহ বিভিন্ন স্থানে অস্থায়ীভাবে বসবাস করা অসহায় মানুষের মুখে আহার তুলে দিচ্ছেন তারা।

dhakapost
অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে কমিউনিস্ট পার্টি ও ছাত্র ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ

বৃহস্পতিবার (০৮ এপ্রিল) রাতে শহরের রেলস্টেশন এলাকায় সড়কের পাশে অস্থায়ীভাবে থাকা অসহায় ছিন্নমূল মানুষের হাতে তুলে দেওয়া হয় খিচুড়ির প্যাকেট। খিচুড়ি হাতে পেয়ে খুশি অসহায় মানুষ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি আবরাব নাদিম ইতু, সাধারণ সম্পাদক অংকুর ও সাংগঠনিক সম্পাদক অরবিন্দু বিশ্বাস ও আরিফুল ইসলামসহ নেতৃবৃন্দ।

ফরিদপুর জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি আবরাব নাদিম ইতু বলেন, লকডাউনের সময় দরিদ্র দিনমজুর মানুষগুলো অসহায় হয়ে পড়েছেন। তাদের মুখে একটু খাবার তুলে দিতেই আমাদের এই উদ্যোগ। 

তিনি বলেন, ছাত্র ইউনিয়ন ও কমিউনিস্ট পার্টির সদস্যরা চাঁদা দিয়ে এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। আমরা তিনদিনে গভীর রাতে শহরের বিভিন্ন স্থানে থাকা প্রায় আড়াই শতাধিক ছিন্নমূল মানুষের মুখে খাবার তুলে দিয়েছি। আমাদের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। 

বি কে সিকদার সজল/এএম

Link copied