মাদক নিরাময় কেন্দ্র থেকে পালিয়ে নদীতে ঝাঁপ, মরদেহ উদ্ধার

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, গাজীপুর

২০ মে ২০২১, ০৪:৫৭ পিএম


মাদক নিরাময় কেন্দ্র থেকে পালিয়ে নদীতে ঝাঁপ, মরদেহ উদ্ধার

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে মাদক নিরাময় কেন্দ্রের এক নিবাসী তুরাগ নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে নিখোঁজ হওয়ার এক দিন পর তার ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২০ মে) সকালে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। 

নিহতের নাম নাহিদ হোসেন (২৭)। তিনি গাজীপুর সদর উপজেলার মনিপুর গ্রামের হবি উল্ল্যাহ্ মোড়লের ছেলে।

নাহিদের বাবা হবি উল্ল্যাহ্ মোড়ল জানান, নাহিদ বাড়ির পাশে বাজারে তার (বাবার) সঙ্গে মুদি দোকানের ব্যবসা করত। দাম্পত্য জীবনে অশান্তির কারণে স্ত্রীর সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়ে যায়। সম্প্রতি সে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে। গত ১৭ এপ্রিল তাকে কালিয়াকৈরে নিউ প্রত্যয় মাদক নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। বুধবার সেখান থেকে পালিয়ে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে সে নিখোঁজ হয় বলে খবর পাই। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে নদীতে অনেক খোঁজ করেও তার সন্ধান পাইনি।

ওই নিরাময় কেন্দ্রের পরিচালক শামীম আল মামুন জানান, বুধবার সকালে নাহিদ পালিয়ে পুনর্বাসন কেন্দ্রের ছাদ থেকে পাশের তুরাগ নদীতে ঝাঁপ দেয়। কেন্দ্রের লোকজন অনেক চেষ্টা চালিয়েও তাকে খুঁজে পায়নি। পরে বিষয়টি নাহিদের পরিবার, স্থানীয় ফায়ার স্টেশন ও পুলিশ স্টেশনে জানানো হয়। 

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, নেশাগ্রস্ত নাহিদকে একাধিকবার এ কেন্দ্রে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। সে ভালো হয়ে বাড়ি চলে যায়। পরে আবার অবস্থার অবনতি হলে তাকে এ পুনর্বাসন কেন্দ্রে পাঠায় পরিবারের লোকজন। 

বুধবার কেন্দ্রের দোতলা থেকে পাশের বাসার ছাদে লাফ দিয়ে পালিয়ে যায়। পালিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে সেন্টারের লোকজন পিছু নিলে নাহিদ নদীতে ঝাঁপ দেয়। সাঁতার না জানার কারণে সে নদীর পানিতে তলিয়ে যায়। পরে ডুবুরি দল সারা দিন চেষ্টা করেও নাহিদকে উদ্ধারে করতে না পেরে সন্ধ্যায় উদ্ধার কাজ সমাপ্ত ঘোষণা করেন।

বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয়রা নাহিদের মরদেহ নদীতে ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ বেলা ১১টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। 

শিহাব খান/এসপি/জেএস

Link copied