রাতের অন্ধকারে গণপরিবহনে ডাকাতি

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

২৪ আগস্ট ২০২১, ০৬:০৫ এএম


রাতের অন্ধকারে গণপরিবহনে ডাকাতি

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট-শিবগঞ্জ সড়কের সোনাজল নামক জায়গায় গণপরিবহন ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (২৩ আগস্ট) রাত ৮টার দিকে ডাকাতি হয়।

এ সময় ডাকাতেরা লাঠি দিয়ে ঢাকা কোচের সামনের অংশ ভাঙচুর করে ভেতরে ঢুকে যাত্রীদের পিটিয়ে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কার ছিনতাই করে। এছাড়া একাধিক ট্রাক, মোটরসাইকেল ও পিকআপে ছিনতাই হয়েছে। 

ভুক্তভোগী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মতো ঢাকাগামী বাসগুলো ভোলাহাট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ভোলাহাট-শিবগঞ্জ সড়কে ছেড়ে যায়। রাত ৮টার দিকে ভোলাহাট উপজেলার সোনাজল নামক স্থানে ১৫-১৬ জন মুখোশ পরা ডাকাত হাতে হাসুয়া ও লাঠি হাতে হামলা চালায়। গণপরিবহন ছাড়াও ঢাকাগামী আমভর্তি ট্রাকের হেলপার-ড্রাইভারকে মারধর ও ছিনতাই হয়। 

ঢাকাগামী কোচ জমজম ট্রাভেলসের হেলপার আরিফ জানান, ডাকাত দলের টের পেয়ে গাড়ির দরজা আটকে দেওয়ার আগেই গাড়িতে ঢুকে আমাকে মারপিট করে। পরে গাড়ীর যাত্রীদের পিটিয়ে টাকা-গয়না ছিনতাই করে। এ সময় নারী যাত্রীদের শ্লীলতাহানি করা হয়েছে।

সুপারভাইজার আলমগীর হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে আসার আগেই ডাকাত দল কয়েকটি ট্রাক-পিকাপ ও মোটরসাইকেলে ডাকাতি চালিয়ে যাচ্ছিল। আমাদের পালিয়ে যাওয়ার কোনো সুযোগ ছিল না। গাড়ী দেখে ডাকাত দল হেলপারকে পিটিয়ে দ্রুত গাড়ীর ভেতর ঢুকে যাত্রীদের টাকা ও স্বর্ণালংকার ছিনতাই করে। প্রথমে সাথী এন্টারপ্রাইজ পরে আমাদের জমজম ও এরপর চাঁপাই ট্রাভেলসেও ডাকাতি করে।

ঢাকা কোচের টিকিট মাস্টার মো. নওশাদ বলেন, তিনটি ঢাকা কোচে প্রায় ৬০-৭০ জন যাত্রী ছিল। এদের পিটিয়ে প্রায় সবার নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকার ও মোবাইল ফোন ছিনতাই করেছে। এছাড়াও একাধিক ট্রাক, পিকাপ ও মোটরসাইকেল আরোহীর টাকা-মোবাইল ছিনতাই করেছে। 

ঢাকাগামী জমজম বাসের যাত্রী ভোলাহাট উপজেলার বীরশ্বরপুর গ্রামের মো. গণি বিশ্বাস জানান, ডাকাতেরা এসে আমাকে ও আমার স্ত্রী পিটিয়ে সাড়ে ১২ হাজার টাকা, এক ভরি স্বর্ণের হার ও কানের দুল নিয়ে গেছে। 

এক নারী গার্মেন্টস শ্রমিক জানান, তার কাছ থেকে থাকা পাঁচ হাজার টাকা ও একটি মোবাইল ফোন নিয়ে গেছে।

Dhaka Post

ডাকাতের পিটুনিতে আহত আম বহনকারী ট্রাকের ড্রাইভার মো. কাঞ্চন জানান, আম নিয়ে ঢাকা যাচ্ছিলাম। রাস্তায় ডাকাতেরা আমাকে বেধড়ক পিটিয়ে নগদ ১০ হাজার টাকা ও তিনটি মোবাইল ফোন ছিনতাই করেছে। আমার মাথা-হাত-পিঠে বেধড়ক পিটিয়েছে। 

ভোলাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. আজহারুল ইসলাম জানায়, ডাকাতির ঘটনায় পাঁচজন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। আহতরা উপজেলার খালেআলমপুর গ্রামের সাথী এন্টারপ্রাইজের চালক মো. মানোয়ার, যাত্রী রাজিয়া, বীরশ্বরপুরে ওবাইদুল, মো. রবিউল ও ট্রাক ড্রাইভার মো. কাঞ্চন। 

ভোলাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান জানান, বাস ডাকাতির খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। ডাকাতির সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় আনা হবে।

মো. জাহাঙ্গীর আলম/ওএফ

Link copied