রেলের জমি উদ্ধারে যাওয়া এক্সকাভেটরে অগ্নিসংযোগ

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৪৫ পিএম


রেলের জমি উদ্ধারে যাওয়া এক্সকাভেটরে অগ্নিসংযোগ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দখল হয়ে যাওয়া রেলের জমি পুনরুদ্ধার অভিযান পরিচালনাকালে একটি এক্সকাভেটরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে শ্রীমঙ্গল শহরের শহরের ভানুগাছ সড়কে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে এক্সেকাভেটরের আগুন নিভিয়ে ফেলে।

শ্রীমঙ্গল ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের ইনচার্জ মিজানুর রহমান জানান, কারা এ আগুন লাগিয়েছে তা জানা যায়নি। খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিভিয়ে ফেলেন। তদন্ত করে ক্ষয়ক্ষতি জানা যাবে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ভানুগাছ সড়কের উত্তর পাশের রেলের ২৮৭ শতক জমির ওপর বিভিন্ন স্থাপনা উচ্ছেদ করার পরিকল্পনা ছিল রেল বিভাগের। সেই প্রস্তুতির অংশ হিসেবে সেখানে একটি এক্সকাভেটর আনা হয়।

এক্সকাভেটরটি রেলগেট পয়েন্টে আসামাত্র কয়েকজন দুর্বৃত্ত মাটি খননকারী এ যন্ত্রের কেবিনে আগুন ধরিয়ে পালিয়ে যায়। আগুনে এই যন্ত্রটির চালকের কেবিন ও নিচের অংশ সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়।

বাংলাদেশ রেলওয়ের পূর্বাঞ্চল জোনের সহকারী এস্টেট অফিসার বলেন, আজ ওই এলাকার রেলের প্রায় ২৮৭ জায়গা উদ্ধারে উচ্ছেদ অভিযানের প্রস্তুতি নেওয়া ছিল। কাজের জন্য এক্সকাভেটর যন্ত্রটি সেখানে নেওয়া হয়েছে। রেলের একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেখানে পাঠানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ৩৮ বছর পর গত ২০১৯ সালের ২৭ নভেম্বর রেলের শত কোটি টাকার এই ভূমি উদ্ধার অভিযান চালায় রেল বিভাগ। শতাধিক আইনশৃঙ্খখলা বাহিনীর সহায়তায় ২টি বুলডোজার দিয়ে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে।

এতে শহরের প্রভাবশালীদের দখলে থাকা ভানুগাছ সড়কের মুক্তিযোদ্ধা কৃষি নার্সারি প্রকল্প, অভিজাত রেস্টুরেন্ট, গ্যাস সিলিন্ডারের গুদাম, ফার্নিচারের শোরুম, ভ্যারাইটি স্টোরসহ শতাধিক পাকা স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। এরপর রেল বিভাগের দেখভালের অভাবে এই জমিগুলো আবার দখল করে স্থাপনা নির্মাণ শুরু করে দখলদাররা।

ওমর ফারুক নাঈম/এমএসআর

Link copied