প্রতিষ্ঠার ৭ বছর পর ভোট দেবীগঞ্জে

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার বাড়ছে

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, পঞ্চগড়

২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৫১ এএম


বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার বাড়ছে

প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ ৭ বছর পর পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আজ সোমবার সকাল ৮টায় শুরু হয়েছে ভোট গ্রহণ, চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। 

সকাল থেকে দেখা যায় পৌরসভার ৯টি ভোট কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটকেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি বাড়তে শুরু করে। 

নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর বিপরীতে ৪ জন স্বতন্ত্র (আওয়ামী লীগ নেতা) প্রার্থী  ছাড়াও  বিএনপির দুজনসহ মোট ৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৬৩ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৮ জন নারী প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 

২০১৪ সালে দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীগঞ্জ সদর ইউনিয়ন ও দেবীডুবা ইউনিয়নের কিছু অংশ নিয়ে গঠিত হয় দেবীগঞ্জ পৌরসভা। পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ১০ হাজার ৯শ ১৪ জন। তার মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ হাজার ৩শ ৩৬ জন এবং নারী ভোটার ৫ হাজার ৫শ ৭৮ জন।  

পৌরসভাটি আজ থেকে সাত বছর আগে প্রতিষ্ঠা লাভ করলেও কোনো নির্বাচন হয়নি। ফলে পৌর প্রশাসক দিয়ে দীর্ঘ দিন চলেছে কার্যক্রম। 

দীর্ঘ ৭ বছর পর অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে দুই দলের একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী অংশ নিয়েছেন। নৌকা প্রতীকে অংশ নিচ্ছেন দেবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী। একই পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি নূর নেওয়াজ (মোবাইল ফোন), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক (রেল ইঞ্জিন),যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ (ক্যারাম বোর্ড) এবং পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন নিউটন (জগ) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। 

এছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এফ এস এম মোফাখখারুল আলম বাবু  (চামচ) ও উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক সরকার ফরিদুল ইসলাম (নারিকেল গাছ), স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে যাকারিয়া ইবনে ইউসুফ (ইস্ত্রি মেশিন) এবং মাসুদ পারভেজ (কম্পিউটার) নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।  

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার ৯ কেন্দ্রে ৩২টি বুথে ভোটগ্রহণ  চলছে। নির্বাচনকে শান্তিপূর্ণ ও নিরবচ্ছিন্ন এবং নিরপেক্ষ করতে পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি র‌্যাব ও আনসার মোতায়েন করা হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেটের অধীনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাজ করছে। এছাড়াও একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নির্বাচনী এলাকায় টহল দিচ্ছেন। যেকোনো নাশকতা ঠেকাতে পুলিশের ২০০ জন সদস্য বিভিন্ন সড়ক ও কেন্দ্রে নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। রিটার্নিং অফিসার প্রত্যয় হাসানের অধীনে ৯ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৩২ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসারসহ ১০৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী ভোটগ্রহণের কাজ করছেন। প্রতিটি কেন্দ্রে ইভিএম দিয়ে ভোটগ্রহণ চলছে। ৯টি ওয়ার্ডের ৯টি কেন্দ্রে প্রথমবারের মতো ১২০টি  ইভিএম মেশিনের মাধ্যমে ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ৯টি কেন্দ্রের মধ্যে দুটি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ ও দুটি কেন্দ্র অধিক ঝুকিপূর্ণ হিসেবে গণ্য করেছে নির্বাচন কমিশন।  

নৃপেন নারায়ন সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা নারী ভোটার শারমিন আক্তার বলেন, আমি দীর্ঘ ৭ বছর পর ভোট দিতে পেরে অনেক আনন্দিত। আমি আজ প্রথম ইভিএমের মাধ্যমে ভোট প্রদান করলাম এবং আমার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়েছি। 

আল-আমিন নামে আরেক ভোটার বলেন, সকাল সকাল এসে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে নিজের ভোট দিতে পেরে খুব আনন্দ লাগছে।  

দেবীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী  অফিসার প্রত্যয় হাসান বলেন, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে ভোট চলছে। আমরা একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচন উপহার দিতে পারবো বলে আশাবাদী৷ 


মো. রনি মিয়াজী/এনএফ

টাইমলাইন

Link copied