পঞ্চগড়ে গভীররাতে ধানক্ষেত থেকে নবজাতক উদ্ধার

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, পঞ্চগড়

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৪৪ পিএম


পঞ্চগড়ে গভীররাতে ধানক্ষেত থেকে নবজাতক উদ্ধার

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় ধানক্ষেতের আইল থেকে এক নবজাতককে উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শিশুটিকে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে বোদা উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর। বর্তমানে শিশুটি জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের অধীনে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালের স্ক্যানু বিভাগে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছে।

এর আগে গতকাল বুধবার দিবাগত রাত ৩টায় জেলার বোদা উপজেলাধীন ময়দানদিঘী ইউনিয়নের আওকারী পাড়া এলাকা থেকে ওই নবজাতককে উদ্ধার করা হয়। 

স্থানীয় ও জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, বোদা উপজেলার আওকারী পাড়া এলাকায় বুধবার দিবাগত রাতে একটি ধানক্ষেত থেকে হঠাৎ করে এক শিশুর কান্নার আওয়াজ শুনতে পায় স্থানীয়রা। পরে কান্নার আওয়াজ শুনে স্থানীয় কয়েকজন সেই ধানক্ষেতের আইলের ওপর সদ্য প্রস্রবকৃত ওই নবজাতকে দেখতে পায় এবং থানায় খবর দেয়।

এসময় স্থানীয়রা ভয়ে নবজাতক শিশুটিকে উদ্ধার করার সাহস না পেলেও ওই এলাকার নাসিমা বেগম শিশুকে দ্রুত উদ্ধার করে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় বোদা উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর শিশুটিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। 

এ বিষয়ে নবজাতক শিশুটিকে উদ্ধারকারী নাসিমা বেগম বলেন, খবর পেয়ে আমরা স্থানীয়রা সবাই ধানক্ষেতে গিয়ে দেখি শিশুটি কান্না করছে। দেখার পর অনেকে শিশুটিকে কোলে নেয়ার সাহস না পাওয়ায় আমি কোলে তুলে বাড়িতে নিয়ে যাই। এসময় শিশুটিকে জোঁকে ধরেছিল। পরে জোঁকটি ছড়িয়ে দেই। তবে শিশুটির নাড়ি কাটা ছিল। বর্তমানে শিশুটিকে নিয়ে হাসপাতালে আমিও রয়েছি। প্রশাসন যদি শিশুটিকে আমাকে দেয় তাহলে আমি তাকে মায়ের যত্ন দিয়ে লালন পালন করে বড় করব। 

এ বিষয়ে ময়দানদিঘী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নরেশ চন্দ্র রায় বলেন, রাতে স্থানীয় লোকজন আমাকে বিষয়টি জানায় যে, তারা একটি শিশু উদ্ধার করেছে। পরে আমি ও ইউপি চেয়ারম্যানসহ প্রশাসনকে অবহিত করলে তারা শিশুটিকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। 

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট (শিশু বিশেষজ্ঞ) ডা. মনোয়ারুল ইসলাম বলেন, শিশুটির শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। আমরা প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দিয়ে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখেছি। বর্তমানে শিশুটিকে স্যালাইনের মাধ্যমে খাবার খাওয়ানো হচ্ছে। তবে শিশুটির শারীরিক গঠন এখনও ঠিক হয়নি। কিছুটা দুর্বলতা রয়েছে। তবে আমরা সার্বক্ষণিক খোঁজ নিচ্ছি। 

বোদা উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোলেমান আলী জানান, উদ্ধার হওয়া শিশুটি জেলা সমাজসেবার মাধ্যমে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। শিশুটির দায়িত্ব কে নেবে বা কাকে দেয়া হবে এ বিষয়ে পরবর্তী আলোচনা সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রনি মিয়াজী/এমএএস

Link copied