কেতনার বিলে পাওয়া শহীদের হাড় গেল মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

১০ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪৯ পিএম


কেতনার বিলে পাওয়া শহীদের হাড় গেল মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার কেতনার বিল বধ্যভূমিতে শহীদ হওয়া এক বাঙালির হাড় জাদুঘরে হস্তান্তর করা হয়েছে। শনিবার (৯ অক্টোবর) বিকেলে উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের কেতনার বিল গ্রামের মৃত দেবেন্দ্র নাথ পাত্রের স্ত্রী মায়া পাত্র গণহত্যা-নির্যাতনের স্মৃতিচিহ্ন স্বরূপ মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদের দেহের হাড় খুলনা গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেন। 

গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘরের গবেষণা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আরিফুল হক ও গবেষক লুলু আর মারজান শহীদের হাড় গ্রহণ করেন। 

বিষয়টি নিশ্চত করে গবেষণা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আরিফুল হক বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে গণহত্যা-নির্যাতন নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ৫০ বছরের পুরোনো মানবদেহের হাড় জাদুঘরে সংরক্ষণ করা হবে। আমরা সন্ধান পাই কেতনার বিল থেকে হাড় সংগ্রহ করে রেখেছেন স্থানীয়রা। জাদুঘরে আগৈলঝাড়ার কেতনার বিলের গণহত্যার নামেই এই হাড় সংরক্ষণ করা হবে এবং এই হাড়ের দাতা হিসেবে নাম থাকবে কেতনার বিল গ্রামের মৃত দেবেন্দ্র নাথ পাত্রের স্ত্রী মায়া পাত্রের।

মায়া পাত্র বলেন, পাক হানাদার বাহিনীর হাত থেকে আত্মরক্ষার জন্য ১৯৭১ সালের ১৫ মে রাজিহার ইউনিয়নের কেতনার বিলে আগৈলঝাড়া ও গৌরনদী উপহেলার মানুষ আশ্রয় নিতে যাচ্ছিল। বেলা ১১টার দিকে পাক সেনারা সেখানে পৌঁছে মেশিনগান দিয়ে ব্রাশফায়ার করে পাখির মতো বাঙালিদের হত্যা করে। তখন কেতনার বিল লাশের স্তূপে পরিণত হয়। আমার স্বামীও কেতনার বিলে প্রাণ হারান। তখন মরদেহ সৎকার বা কবর দেওয়ার লোক খুঁজে পাওয়া যায়নি। যে কারণে বহু মরদেহ কেতনার বিলেই পচে গলে নষ্ট হয়। কয়েক দিন আগে জমি থেকে মাটি আনতে গিয়ে হাড়টি পাই। পরে সেটি সংরক্ষণ করে রাখি। 

সৈয়দ মেহেদী হাসান/আরএআর

Link copied