মৃৎশিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

১২ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৪৪ পিএম


মৃৎশিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে

মৃৎশিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। তিনি বলেন, মৃৎশিল্প আমাদের ঐতিহ্য। এই শিল্প পরিবেশবান্ধব। মৃৎশিল্পের প্রসার যত হবে ততই আমাদের সংস্কৃতি এবং জীবনমানের উন্নয়ন হবে। এর মাধ্যমে মৃৎশিল্পের সঙ্গে জড়িত দেশের হাজার হাজার মানুষের সংসার বাঁচবে। 

সোমবার (১২ অক্টোবর) বরিশাল শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজিত ত্রয়োদশ মৃৎশিল্পী সম্মেলন ও সম্মাননা অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার দেশীয় সংস্কৃতি রক্ষা করতে সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। বড় বড় প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে। মৃৎশিল্প আমাদের স্বকীয়তা বহন করে। জাতিগতভাবেই মৃৎশিল্প আমাদের ইতিহাস ঐতিহ্যের সাথে মিশে আছে। এ কারণে মৃৎশিল্পকে প্রাধান্য দিয়ে এই শিল্প বাঁচাতে সকলের এগিয়ে আসতে হবে।

চারুকলা বরিশালের সভাপতি আলতাফ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের পরিচালক ড. আহমেদ উল্লাহ, বরিশালের জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার, শিল্পানুরাগী ময়নুল আবেদিন, সচেতন নাগরিক কমিটি বরিশাল জেলার সভাপতি শাহ সাজেদা, অনুষ্ঠানের আহবায়ক সুশান্ত ঘোষ। 

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, মৃৎশিল্পের কাঁচামাল দেশের মাটি হলেও অসহায়ভাবে জীবন যাপন করতে হচ্ছে শিল্পীদের। করোনাকালে সরকারিভাবে কোনো সহায়তা তারা পাননি। ফলে এই শিল্পের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল থাকার কথা, কিন্তু বাস্তবে তা হয়নি।

ত্রয়োদশ সম্মেলন ও সম্মাননায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ১৫ জন পুরস্কৃত হয়েছেন। সম্মেলনে বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন জেলা ছাড়াও
রাজশাহী, নওগাঁ, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর ও রাজবাড়ী থেকে দুই শতাধিক মৃৎশিল্পী যোগ দেন।

মেহেদী হাসান/আরআই

 

 

Link copied