ইউপি নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে নির্মলেন্দু গুণের আহ্বান

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, নেত্রকোনা

৩১ অক্টোবর ২০২১, ১০:২২ পিএম


ইউপি নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে নির্মলেন্দু গুণের আহ্বান

নির্মলেন্দু গুণ ছবি: সংগৃহীত

চলমান ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থকদের ওপর আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের হামলা ও নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুরের ঘটনায় চরম উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন দেশবরেণ্য কবি নির্মলেন্দু গুণ। তিনি ‘ইউপি নির্বাচন নিয়ে কবি নির্মলেন্দু গুণের আহ্বান’ শিরোনামে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

শনিবার (৩০ অক্টোবর) কবি তার ‘নির্মলেন্দু গুণ’ নামের ফেসবুক আইডিতে এ স্ট্যাটাস দেন।

কবি নির্মলেন্দু গুণের ফেসবুক স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো—

‘ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা মনে হয় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে চাইছে। তাই যেখানে পরাজয়ের সম্ভাবনা দেখা দিচ্ছে, সেখানে জনসমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মাঠছাড়া করার জন্য তারা প্রতিপক্ষের ওপর প্রকাশ্যে হামলা করছে।

আমার নিজ উপজেলা থেকে পাওয়া এ রকম চিত্রই সারা দেশের চিত্র কি- না জানি না। হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি বলে মনে হয়। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা আমার উপজেলায় অধিকাংশ স্বতন্ত্র প্রার্থী এবং তাদের সমর্থকদের ভয়-ভীতি প্রদর্শন করছে।

Dhaka Post

স্থানীয় প্রশাসন নৌকা প্রতীক পাওয়া ‘ধোয়া তুলসীপাতা’দের আক্রমণ থেকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী স্বতন্ত্র প্রার্থী ও তাদের কর্মী-সমর্থকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারছে না, বা চাইছে না।

আমি খালি মাঠে গোল দেয়ার এই বদভ্যাস পরিত্যাগ করার জন্য নৌকা প্রতীক প্রাপকদের প্রতি সবিনয় আহ্বান জানাচ্ছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দয়া করে আপনি আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে আপনার মনোনীত প্রার্থীদের সহিষ্ণু হবার নির্দেশ দিন। তাদের রাজশক্তির দম্ভ প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকতে বলুন। মাঠ পর্যায়ের জনগণের রায় নিয়ে তাদের জয়ী হতে বলুন।

স্থানীয় প্রশাসনকে দুষ্টের দমন ও শিষ্টের সুরক্ষায় নিরপেক্ষ ভূমিকা পালনের জন্য সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ দিন।
সেটাই আপনার জন্য এবং দেশের ভবিষ্যতের জন্য ভালো হবে।’

কামরাঙ্গীরচর
৩০ অক্টোবর ২০২১।

কবি নির্মলেন্দু গুণের দেওয়া ওই ফেসবুক স্ট্যাটাসে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা নানা মন্তব্য করেছেন। মন্তব্যকারীদের সবাই কবির সঙ্গে একমত পোষণ করে দলীয় প্রতীক ছাড়া মুক্ত নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানান।

মো. জিয়াউর রহমান/এনএ

Link copied