২০২১ সালে যশোরে আলোচিত সব ঘটনা

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, যশোর 

০৩ জানুয়ারি ২০২২, ০২:১৮ পিএম


২০২১ সালে যশোরে আলোচিত সব ঘটনা

নানা ঘটনা আর আলোচনা-সমালোচনায় শেষ হয়েছে ২০২১ সাল। এর মধ্যে কিছু ঘটনা মানুষের মনে দাগ কেটেছে। ২০২১ সালে এমনই অন্তত আটটি ঘটনা ঘটেছে যশোরে। 

সড়ক দুর্ঘটনায় এমএম কলেজের ৬ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

১১ ফেব্রুয়ারি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজারে যশোর থেকে মাগুরাগামী জিকে পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এতে যাত্রীবাহী বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার ওপর উল্টে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলে ৯ জন ও পরে তিনজন মারা যান। নিহতদের মধ্যে ৬ জনই ছিলেন যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন (এমএম) কলেজের মাস্টার্স পরীক্ষার্থী। 
তাদের মৃত্যুতে ক্যাম্পাসে শোকের ছায়া নেমে আসে। 

পুলিশ হেফাজতে আওয়ামী লীগ নেতা নির্যাতন, পুলিশ সুপার বদলি

জানুয়ারিতে যশোর কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার এলাকায় পুলিশ সদস্যকে মারপিটের ঘটনায় আটক হন যশোর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম মাহমুদ হাসান বিপু। ১৯ ঘণ্টা পর পুলিশি হেফাজত থেকে মুক্ত হয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। এরপর তিনি হাসপাতালের বেডে শুয়ে পুলিশের নির্যাতনের বর্ণনা দেন। গণমাধ্যমে সংবাদপ্রকাশের পর তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এরপর তাকে হেলিকপ্টারে নেওয়া হয় ঢাকায়। এ ঘটনার জেরে তৎকালীন পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেনকে বদলি করা হয়। গঠিত হয় একাধিক তদন্ত কমিটিও।

এমপি শাহীন চাকলাদার ও কেশবপুর থানার ওসির ফোনালাপ ফাঁস

যশোর-৬ ( কেশবপুর) আসনের সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদার ও কেশবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিনের ফোনালাপ ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ৩০ জানুয়ারি বিভিন্ন গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশ হয়। এ নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। ওই ফোনালাপে এমপি শাহীন চাকলাদারকে বলতে শোনা যায়, আপনি এখন রাত্তিরে থানায় বোম মারেন একটা। মেরে ওর নামে মামলা করতে হইবে। পারবেন? আপনি থাকলে এগুলো করতে অইবে। না অইলে কোন জায়গায় করবেন? আমি যা বলছি, লাস্ট কথা ইডাই। যদি পারেন ওই এলাকা ঠান্ডা রাখতি, আমি বন ও পরিবেশ বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য। ওখানে কারও বাপের ক্ষমতা নেই। 

জায়গা না পেয়ে হাসপাতালের গাছতলায় করোনা রোগী 

যশোর জেনারেল হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে শয্যা সংকটের কারণে গাছতলায় চিকিৎসাধীন রিনা খাতুনের (৫৫) দুর্ভোগের সচিত্র প্রতিবেদন ৬ জুলাই গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। এতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোড়ন তৈরি হয়। 

রোগীর স্বজনদের দাবি, করোনার উপসর্গ নিয়ে রিনা খাতুন রাতে ভর্তি হন যশোর জেনারেল হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে। নিয়মানুযায়ী তাকে করোনা ওয়ার্ডের ইয়োলো জোনে রাখার কথা। কিন্তু সেখানকার শয্যা তো দূরের কথা বারান্দায়ও জায়গা নেই। নিরুপায় হয়ে স্বজনরা তাকে করোনা ওয়ার্ডের বাইরে নমুনা সংগ্রহের জন্য রাখা টেবিলের ওপর রাখেন। পরের দিন সকালে নমুনা সংগ্রহ শুরু হওয়ায় টেবিলের ওপর থেকে নামিয়ে গাছতলায় রাখা হয়। 

ভূমি অফিসের ঘুষ দুর্নীতি নিয়ে প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্যের বক্তব্যে তোলপাড়

২৯ সেপ্টেম্বর যশোরের মনিরামপুর উপজেলা পরিষদের বটতলা প্রাঙ্গণে তথ্য অধিকার দিবসের অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য বক্তব্য দেন। সেখানে তিনি বলেন, ‘আমি সংসদ সদস্য, আমি মন্ত্রী। সরকারি মিল্ক ভিটা ফ্যাক্টরি করব বলে আমার ছেলের নামে একটি জমির দলিল করতে পাঠাইছিলাম। রেজিস্ট্রি অফিসে দুর্নীতির একটি রেট আছে। ওই রেট অনুযায়ী ঘুষের টাকা না দিলে জমি রেজিস্ট্রি হয়নি। এক সপ্তাহ আগের কথা। আমি লজ্জায় এ কথা কারও কাছে বলিনি।’ তার এই বক্তব্যে তোলপাড় শুরু হয়। 

যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে দুইজনের ফাঁসি কার্যকর 

৪ অক্টোবর রাতে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় দুই বান্ধবীকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় আজিজুল আজিজ (৫০) ও মিন্টু কালুর (৫০) ফাঁসি কার্যকর করা হয়। চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার দুই আসামির ফাঁসি কার্যকরের ঘটনাটি ছিল অন্যতম আলোচিত।

দুইজনের ফাঁসি কার্যকর ও আপিল নিষ্পত্তি বিতর্ক

২০১৭ সালের ১৬ নভেম্বর যশোর কারাগারে চুয়াডাঙ্গা জেলার মুক্তিযোদ্ধা মনোয়ার মেম্বার হত্যা মামলায় দুই আসামি পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টির আঞ্চলিক নেতা মোকিম ও ঝড়ুর ফাঁসি কার্যকর করা হয়। ৩ নভেম্বর গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, আপিল নিষ্পত্তির আগেই মোকিম ও ঝড়ুর ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে। এ নিয়ে সারাদেশে তোলপাড় হয়। পরে উচ্চ আদালতের সিদ্ধান্তে এ বিতর্কের অবসান ঘটে।

যশোর শিক্ষা বোর্ডে চেক জালিয়াতির মাধ্যমে ৭ কোটি টাকা আত্মসাত, চেয়ারম্যান-সচিব ওএসডি

চেক জালিয়াতির মাধ্যমে যশোর শিক্ষা বোর্ডের প্রায় সাত কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনা ফাঁস হওয়ায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে ২৩ নভেম্বর চেক জালিয়াতির মাধ্যমে অর্থ লোপাটের অভিযোগে দুদকের মামলার পর ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করা হয় যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মোল্লা আমীর হোসেন ও সচিব এএমএইচ আলী আর রেজাকে। 

এর আগে অক্টোবর মাসে চেক জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সমন্বিত জেলা কার্যালয় যশোরের সহকারী পরিচালক মাহফুজ ইকবাল বাদী হয়ে মামলা করেন। 

ওই মামলার আসামিরা হলেন- যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মোল্লা আমীর হোসেন, সচিব এ এম এইচ আলী আর রেজা, হিসাব সহকারী আবদুস সালাম, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ভেনাস প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিংয়ের মালিক শরিফুল ইসলামসহ পাঁচজন।

জাহিদ হাসান/এসপি

Link copied