ঢাকায় হাতিল ফার্নিচারের ডিলার্স কনফারেন্স

Dhaka Post Desk

ঢাকা পোস্ট ডেস্ক

০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৩১ পিএম


ঢাকায় হাতিল ফার্নিচারের ডিলার্স কনফারেন্স

রাজধানীর ঢাকায় বাংলাদেশের সব থেকে বড় ফার্নিচারের ব্র্যান্ড হাতিল আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড হিসেবে রপ্তানি বাজারে অবদান রাখার প্রত্যয়ে শনিবার (৩ ডিসেম্বর) একটি ডিলার্স কনফারেন্সের আয়োজন করেছে।

দেশব্যাপী সত্তরটিরও বেশি শোরুমের মাধ্যমে কোম্পানিটি বেশ সফলতার সাথে ক্রেতাদের সমসাময়িক আসবাবের চাহিদা মিটিয়ে দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে তাদের ব্যবসা সম্প্রসারণ করছে। সম্প্রতি, ভারতে চালু হয় হাতিলের ২৮তম শোরুম। হাতিলের একমাত্র বাংলাদেশি ব্র্যান্ড হিসেবে বিদেশের মাটিতে সর্বোচ্চ সংখ্যক আউটলেট রয়েছে।

ডিলার্স কনফারেন্সে প্রধান অতিথি হিসেবে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি এমপি উপস্থিত ছিলেন। সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাতিলের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক সেলিম এইচ রহমান। এছাড়াও সম্মানিত পরিচালক মাহফুজুর রহমান, মিজানুর রহমান, মশিউর রহমান এবং সফিকুর রহমান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। 

সারা দেশ থেকে ১০০ জনেরও বেশি অংশগ্রহণকারী এ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। অনুষ্ঠানে চলমান অর্থনৈতিক সংকটে বাংলাদেশের সার্বিক ব্যবসায়িক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। বর্তমান এবং ভবিষ্যতের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটের ওপর ভিত্তি করে কর্মপরিকল্পনা নিয়েও আলোচনা করা হয়।

অনুষ্ঠানে জনাব সেলিম এইচ রহমান বলেন, করোনা মহামারী মোকাবেলা করে দেশের ফার্নিচার শিল্প সফলতার সাথে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এর পেছনে রয়েছে সরকারের আন্তরিকতা, ফার্নিচার শিল্পের উদ্যোক্তাদের নিষ্ঠা এবং দেশের ক্রেতা-সাধারণের অকুন্ঠ সমর্থন। প্রতিকূল পরিবেশ মোকাবেলা করে যারা এখনও এই সম্ভাবনাময় শিল্পের সাথে জড়িত রয়েছেন তাদের সবার প্রতি রইলো আমার আন্তরিক শুভকামনা।

জনাব মশিউর রহমান বলেন, করোনাকালীন সংকট আর সাম্প্রতিক ইউক্রেন-রাশিয়ার মধ্যকার বিরোধ আন্তর্জাতিক অর্থনীতিকে চরমভাবে অস্থিতিশীল করে তুলেছে যা অন্যান্য ব্যবসায়ের পাশাপাশি আসবাব শিল্পকেও ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করছে, ফলে আমরা আসবাবের দাম বাড়াতে বাধ্য হয়েছি যা দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক বাজারে নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। এমতাবস্থায়, আমাদের উচিত ব্যবসায়ের প্রতি আরও মনোযোগী হওয়া, সঠিক নেতৃত্ব নিশ্চিত করা, পণ্য সরবরাহ ঠিক রাখা এবং সর্বোপরি ক্রেতা সন্তুষ্টি নিশ্চিত করা। প্রয়োজনীয় নীতি সহায়তা পেলে দেশের অভ্যন্তরীণ বাজারে সহজলভ্য করার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বাজারে রপ্তানির মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের ক্ষেত্রে হাতিল ফার্নিচার অগ্রণী ভূমিকা রাখতে পারবে।

প্রতি বছর নতুন আউটলেট চালু করার মাধ্যমে দ্রুত সম্প্রসারিত হচ্ছে হাতিল। বর্তমানে ব্র্যান্ডটির সারা বাংলাদেশে ৭০টিরও বেশি শোরুম রয়েছে। হাতিল মিজোরাম, মণিপুর, পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, জম্মু ও কাশ্মীর, চণ্ডীগড়, ভুটান, কানাডা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, মধ্যপ্রাচ্য, আরব আমিরাত, সৌদি আরব এবং ইউরোপেও তাদের পণ্য রপ্তানি করে আসছে।

/এফকে/

Link copied