এলএনজি আমদানিতে ৪ কোম্পানিকে অনুমোদন

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

২৩ জুন ২০২১, ০৫:৪৪ পিএম


এলএনজি আমদানিতে ৪ কোম্পানিকে অনুমোদন

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল

বিদেশ থেকে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) আমদানির জন্য চার দেশের চারটি কোম্পানিকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (২৩ জুন) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় কোম্পানি চারটির অনুমোদন দেওয়া হয়। অনুমোদনের লক্ষ্য হলো জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অধীন পেট্রোবাংলার মাধ্যমে স্পট মার্কেট থেকে এলএনজি আমদানি করা। 

কোম্পানি চারটি হলো- জাপানের আটিওসিএইচইউ করপোরেশন, সিঙ্গাপুরের গুনভর সিঙ্গাপুর পেট্রোলিয়াম লিমিটেড, দুবাইয়ের শেল ইন্টারন্যাশনাল ট্রেপিং মিডল ইস্ট লিমিটেড এবং যুক্তরাজ্যের টোটাল গ্যাস অ্যান্ড পাওয়ার লিমিটেড। এসব কোম্পানির সঙ্গে মাস্টার স্কেল অ্যান্ড পারচেজ চুক্তি স্বাক্ষরের নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ভার্চুয়াল সভায় অংশ নেন কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সভা শেষে অনুমোদিত প্রকল্পগুলোর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন অর্থমন্ত্রী ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব।

আজ অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ১৮তম এবং সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ২২তম সভায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন টিসিবির মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী পেঁয়াজ, রসুন, মশুর ডাল, ছোলা, মসলা-শুকনা মরিচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, এলাচ, ধনে, জিরা, আদা, হলুদ, তেজপাতা, সয়াবিন তেল, পাম ওয়েল, চিনি, লবণ (খাবার লবণ বিট লবণ ব্যতিত) ইত্যাদি আমদানি/স্থানীয়ভাবে কেনার ক্ষেত্রে সময়সীমা ২০২৩ সালের ২৬ মে পর্যন্ত দুই বছর বাড়ানোর নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

সভায় অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির অনুমোদনের জন্য একটি এবং ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির অনুমোদনের জন্য ১৬টি প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়। ১৬টি প্রস্তাবের মধ্যে বিদ্যুৎ বিভাগের ১০টি, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের দুটি, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের একটি, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের একটি, জননিরাপত্তা বিভাগের একটি এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের একটি প্রস্তাবনা ছিল। অনুমোদিত ১৬টি প্রস্তাবের মোট ব্যয়ের পরিমাণ এক হাজার ৩৯ কোটি টাকা। 
 
স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীন ঢাকা ওয়াসা কর্তৃক ‘সায়েদাবাদ পানি শোধনাগার প্রকল্প’ বাস্তবায়নে জয়েন ভেনচার হিসেবে ১৬৯ কোটি ৩৫ লাখ ৫০ হাজার ৭৬৯ টাকায় পরামর্শক প্রতিষ্ঠান প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট কনসালটেন্ট (পিএমসি) হিসেবে নিয়োগের প্রস্তাব সভায় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

জননিরাপত্তা বিভাগের অধীন বাংলাদেশ পুলিশ, র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) মাধ্যমে থ্রি সিক্সটি টেকনোলজি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ডেলহাজ লিমিটেড এবং প্রিন্সিপাল প্যানমার্ক ইমপেক্স লিমিটেডের কাছ থেকে জিএসএম ইউএমটিএস ভেইকুলার অ্যাকটিভ সাপোর্ট সিস্টেম ২৯ কোটি ৬৪ লাখ ৩৯ হাজার ৬০০ টাকায় কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক ‘রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য সিগন্যালিংসহ রেল লাইন সংস্কার ও নির্মাণ’ প্রকল্পের প্যাকেজ নম্বর ডব্লিউডি-১ এর পূর্ত কাজ ভেরিয়েশন বাবদ ব্যয় এক কোটি ৭১ লাখ ৫৮ হাজার ৩৯৮ টাকা কমিয়ে সংশোধিত ২৯৫ কোটি ৮৪ লাখ ১৬ হাজার ১০১ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের খাদ্য অধিদফতর ভারত থেকে ৫০ হাজার মেট্রিক টন নন-বাসমতি সিদ্ধ চাল আমদানি করবে। ভারতের বাগডিয়া ব্রাদার্স প্রাইভেট লিমিটেডের নিকট থেকে চাল আমদানির জন্য ১৬৯ কোটি ৫৫ লাখ ৭৬ হাজার টাকায় কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

‘যশোর-বেনাপোল জাতীয় মহাসড়ক যথাযথ মানে ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ’ প্রকল্পের প্যাকেজ নম্বর-ডব্লিউপি-০১  এর পূর্ত কাজ ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ১২ কোটি ৭৪ লাখ ৪৬ হাজার ১৩৭ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

‘যশোর-বেনাপোল জাতীয় মহাসড়ক যথাযথ মানে ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ’ প্রকল্পের প্যাকেজ নম্বর- ডব্লিউপি-২ এর পূর্ত কাজ ভেরিয়েশন বাবদ ব্যয় ৯ কোটি ৫১ লাখ ১৬ হাজার ৫২৩ টাকা কমিয়ে সংশোধিত ১২৭ কোটি ৭৫ লাখ ১ হাজার ৪৯৪ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

‘সৌর বিদ্যুৎ চালিত পাম্পের মাধ্যমে কৃষি সেচ’ প্রকল্পের প্যাকেজ নম্বর- এসপি-আইপি-ডব্লিউ-৩ এর আওতায় নওগাঁ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর অধীন টার্ন-কি পদ্ধতিতে ৩৫৫ সেট সৌর বিদ্যুৎ চালিত সেচ পাম্প স্থাপন কাজ  যৌথভাবে বাস্তবায়নের জন্য বেঙ্গল সোলার, পাওয়ার ইউটিলিটি বাংলাদেশ লিমিটেড এবং জার্মানির আরএএসিএইচ কোম্পানির নিকট থেকে ৪০ কোটি ৯৭ লাখ ৪১ হাজার ৬৯১ টাকায় কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড কর্তৃক ‘সৌর বিদ্যুৎ চালিত পাম্পের মাধ্যমে কৃষি সেচ’ প্রকল্পের প্যাকেজ নং- এসপিপি ডব্লিউ -০৪  এর আওতায় দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর অধীন টার্ন-কী পদ্ধতিতে ৩৪৫ সেট সৌর বিদ্যুৎ চালিত সেচ পাম্প স্থাপন কাজ যৌথভাবে বাস্তবায়নের জন্য বেঙ্গল সোলার, পাওয়ার ইউটিলিটি বাংলাদেশ লিমিটেড এবং জার্মানির আরএএসিএইচ কোম্পানির নিকট থেকে ৪০ কোটি ৫৯ লাখ ৪ হাজার ১৪৩ টাকায় কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

‘সৌর বিদ্যুৎ চালিত পাম্পের মাধ্যমে কৃষি সেচ’ প্রকল্পের প্যাকেজ নম্বর- এসপিআইপি ডাব্লিউ-৫  এর আওতায় ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অধীন ৩৪৫ সেট সৌর বিদ্যুৎ চালিত সেচ পাম্প স্থাপন কাজ যৌথভাব বাস্তবায়নের জন্য বেঙ্গল সোলার, পাওয়ার ইউটিলিটি বাংলাদেশ লিমিটেড এবং জার্মানির আরএএসিএইচ কোম্পানির নিকট থেকে ৪০ কোটি ৩৫ লাখ ৭৬ হাজার ৯৯৫ টাকায় কেনার অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড কর্তৃক ‘সৌর বিদ্যুৎ চালিত পাম্পের মাধ্যমে কৃষি সেচ’ প্রকল্পের প্যাকেজ নম্বর-৬ এর আওতায় গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, মাদারীপুর, কুমিল্লা-২ এবং ফেনী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অধীন টার্ন-কি পদ্ধতিতে ২৫০ সৌর বিদ্যুৎ চালিত সেচ পাম্প স্থাপন কাজ  যৌথভাব বাস্তবায়নের জন্য বেঙ্গল সোলার, পাওয়ার ইউটিলিটি বাংলাদেশ লিমিটেড এবং জার্মানির আরএএসিএইচ কোম্পানির নিকট থেকে ৩৪ কোটি ৯৬ লাখ ৭১ হাজার ৩৬৫ টাকায় কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

‘পল্লী বিদ্যুৎ বিতরণ সিস্টেমের ক্ষমতাবর্ধন’ (ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগ) সংশোধিত প্রকল্পের লট নম্বর ০০১ এর ২৮টি উপকেন্দ্রের পাঁচ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট বাউন্ডারি  দেওয়াল, তিন ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট বারবেড ওয়্যার ফেন্সিং ও মেইন গেট নির্মাণ এবং দুটি উপকেন্দ্র ও একটি বে-সম্প্রসারণ নির্মাণ কাজ ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ১৫ কোটি ৮৭ লাখ ৭ হাজার ২৫ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড কর্তৃক ‘পল্লী বিদ্যুৎ বিতরণ সিস্টেমের ক্ষমতাবর্ধন’ (ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগ) সংশোধিত প্রকল্পের লট নম্বর ০২ এর ১৮টি উপকেন্দ্রের পাঁচ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট বাউন্ডারি ওয়াল, ৩ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট বারবেড ওয়্যার ফেন্সিং ও মেইন গেট নির্মাণ এবং অতিরিক্ত একটি উপকেন্দ্র নির্মাণ কাজ বাবদ অতিরিক্ত ৯ কোটি ২৮ লাখ ১৩ হাজার ৮৬৪ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড কর্তৃক ‘পল্লী বিদ্যুৎ বিতরণ সিস্টেমের ক্ষমতাবর্ধন’ (ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগ) সংশোধিত প্রকল্পের লট ২৭টি উপকেন্দ্রের পাঁচ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট বাউন্ডারি ওয়াল, তিন ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট বারবেড ওয়্যার ফেন্সিং ও মেইন গেট নির্মাণ এবং অতিরিক্ত দুটি উপকেন্দ্র নির্মাণ কাজ ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ১৫ কোটি ৫২ লাখ ৮১ হাজার ৮৯৬ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

‘পল্লী বিদ্যুৎ বিতরণ সিস্টেমের ক্ষমতাবর্ধন’ (ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগ) সংশোধিত প্রকল্পের লট নম্বর-৪ এর ১৮টি উপকেন্দ্রের পাঁচ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট বাউন্ডারি ওয়াল, তিন ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট বারবেড ওয়্যার ফেন্সিং ও মেইন গেট নির্মাণ এবং অতিরিক্ত একটি উপকেন্দ্র ও বে-সম্প্রসারণ নির্মাণ কাজ ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ১৩ কোটি ৩৪ লাখ ৫৩ হাজার ৬৩৩ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

‘পল্লী বিদ্যুৎ বিতরণ সিস্টেমের ক্ষমতাবর্ধন’ (ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগ) সংশোধিত প্রকল্পের লট নম্বর- ৫ এর ১৯টি উপকেন্দ্রের মেইন গেট নির্মাণ এবং অতিরিক্ত একটি উপকেন্দ্র নির্মাণ কাজ ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ৬ কোটি ৭২ লাখ ৩৫ হাজার ৯৪৯ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

‘পল্লী বিদ্যুৎ বিতরণ সিস্টেমের ক্ষমতাবর্ধন’ (ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগ) সংশোধিত প্রকল্পের একটি সুইচিং স্টেশন ও ৪৬টি বে-সম্প্রসারণ নির্মাণ ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ১৬ কোটি ৮৬ লাখ ১৬ হাজার ২০৬ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে সভায়। 

এনএম/আরএইচ 

Link copied