মিউচুয়াল ফান্ডে বাইব্যাক আইন চান এলআর গ্লোবালের সিইও

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

০৮ মে ২০২১, ২২:২৫


মিউচুয়াল ফান্ডে বাইব্যাক আইন চান এলআর গ্লোবালের সিইও

যেসব প্রতিষ্ঠানের মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ারের দাম ১০ টাকার নিচে অবস্থান করছে সেসব প্রতিষ্ঠানের ইউনিট প্রতি শেয়ার বাইব্যাক (কিনে কমানোর) করতে চান ফান্ড ব্যবস্থাপক প্রতিষ্ঠান এলআর গ্লোবালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রিয়াজ ইসলাম।

তিনি বলেন, দেশের মিউচুয়াল ফান্ডের অবস্থা খুব বেশি ভালো নয়। এই সেক্টরকে আগামীতে ভালো করতে কাজ করছি আমরা। যেসব মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ারের দাম ইস্যু দরের নিচে রয়েছে, বাইব্যাক আইনের মাধ্যমে সেসব মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার কিনে শেয়ার সাইজ কমানোর সুযোগ চাই।

শনিবার (৮ মে) রাজধানীর বাড্ডার অ্যামেরিকান চেম্বার অব কমার্সের (অ্যামচেম) সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

মিউচুয়াল ফান্ডে পেশাদারিত্বের অভাব রয়েছে উল্লেখ করে রিয়াজ ইসলাম বলেন, মিউচুয়াল ফান্ডের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত সঠিক ছিল না। মিউচুয়াল ফান্ডের ওপর বিনিয়োগকারীদের আস্থা কম থাকার জন্য এটিও একটি কারণ।

তিনি বলেন, ২০১০ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত সময়ে আমাদের অবস্থা ভালো ছিল। কিন্তু পাঁচ বছর আমরা ব্যাকফুটে ছিলাম। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সাবেক দুজন কমিশনার আমাদের জীবন নরক করে দিয়েছিলেন। তবে এখন সেই অবস্থা নেই। বর্তমান কমিশনের বিষয়ে আমরা খুবই আশাবাদী।

রিয়াজ ইসলাম বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ তোলা হয়েছিল তার ৯৯ শতাংশ ফেব্রিকেটেড (বানোয়াট)। আমরা আদালতেও গিয়েছিলাম। বিএসইসির সাবেক দুই কমিশনার এখন নেই, তাই তাদের নাম বলতে চাচ্ছি না।

তিনি বলেন, মিউচুয়াল ফান্ড আইন সংশোধনের মাধ্যমে আরও ইতিবাচক পরিবেশ হলে এলআর গ্লোবাল নতুন কিছু মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ড নিয়ে আসার চেষ্টা করবে। নাহলে বে-মেয়াদি ফান্ডের দিকে নজর দেবে। যেভাবেই হোক আগামীতে ফান্ডের সংখ্যা বাড়ানো হবে।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের হাওয়া পরিবর্তনে এলআর গ্লোবাল যুগান্তকারী ভূমিকা পালন করার পরিকল্পনায় প্রস্তুত রয়েছে।

এমআই/এসকেডি

Link copied