বিনিয়োগকারীদের পুঁজি ফিরল আরও আড়াই হাজার কোটি টাকা

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

২৫ জুন ২০২১, ০৭:১৬ এএম


বিনিয়োগকারীদের পুঁজি ফিরল আরও আড়াই হাজার কোটি টাকা

তিন দিন সূচকের উত্থান আর দুদিন দরপতনের মধ্য দিয়ে জুনের আরও একটি সপ্তাহ পার করল দেশের পুঁজিবাজার। আলোচিত সপ্তাহে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশির ভাগ কোম্পানির দাম। এ কারণে বিদায়ী সপ্তাহে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বিনিয়োগকারীদের বাজার মূলধন বেড়েছে আড়াই হাজার কোটি টাকা।

করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি ও কালো টাকা সাদা করার সুবিধা নিয়ে চলা নানা গুজবে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ অতঙ্কে অনেক বিনিয়োগকারী শেয়ার বিক্রি শুরু করেন গত বুধবার। তবে বাজার সংশ্লিষ্টদের মতে,  সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) সেই আতঙ্ক ও হতাশা অনেকটাই কেটে গেছে বিনিয়োগকারীদের।

ডিএসইর তথ্য মতে, বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট পাঁচ কার্যদিবসে ৯ হাজার ৫২৪ কোটি ২৯ লাখ ১৮ হাজার ৮১৭ টাকা লেনদেন হয়েছে ; যা আগের সপ্তাহের চেয়ে পৌনে ৩০০ কোটি টাকা কম, শতাংশের হিসেবে ২ দশমিক ৮০ শতাংশ কম। আগের সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৯ হাজার ৭৯৮ কোটি ৬৭ লাখ ৯৮ হাজার ২৫৫ টাকা।

বিদায়ী সপ্তাহে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ২২৪টির, কমেছে ১৪০টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১১টি কোম্পানির শেয়ার দাম। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছিল ১৪৮টির, কমেছিল ২১০টির, অপরিবর্তিত ছিল ১৭ কোম্পানির শেয়ার দাম।

এতে ডিএসইর প্রধান সূচক আগের সপ্তাহের চেয়ে ৪০ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৯২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস শরীয়াহ সূচক আগের সপ্তাহের চেয়ে ১০ দশমিক ৯৩ পয়েন্ট এবং ডিএস-৩০ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়েছে।

বেশিরভাগ শেয়ারের দাম ও প্রধান সূচক বাড়ায় ডিএসইতে বিদায়ী সপ্তাহে বিনিয়োগকারীদের পুঁজি বা বাজার মূলধন ২ হাজার ৫০৩ কোটি ৯৩ লাখ ৭১ হাজার ৮৪ টাকা বেড়ে ৫ লাখ ১০ হাজার ৬৩৮ কোটির ৭৬ লাখ ১৮ হাজার ৩৮৫ টাকায় দাঁড়িয়েছে। এর আগের সপ্তাহে যা ছিল ৫ লাখ ৮ হাজার ১৩৪ কোটির ৮২ লাখ ৪৭ হাজার ১০১ টাকা।

ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বাড়ার শীর্ষে ছিল : মালেক স্পিনিং, খান ব্রাদার্স,কাট্টালী টেক্সটাইল, সালভো কেমিক্যালে ইন্ডান্ট্রিজ, অলিম্পিক এক্সেসোরিজ, দেশবন্ধু পলিমার, ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস, প্রাইম টেক্সটাইল স্পিনিং মিলস এবং এনভয় টেক্সটাইল লিমিটেড।

লেনদেনের শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হচ্ছে : বেক্সিমকো লিমিটেড, পাইওনিয়ার ইনস্যুরেন্স, ন্যাশনাল ফিড মিলস, ম্যাক্সনস স্পিনিং মিলস, মালেক স্পিনিং মিলস, অরিয়ন ফার্মা লিমিটেড,কাট্টালী টেক্সটাইল, ফরচুন সুজ, ড্রাগন সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং মিলস এবং কুইন সাউথ টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড।

দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৫৬০ কোটি ৮৭ লাখ ৬২ হাজার ৮৮৯ টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৪৪৪ কোটি ৮৪ লাখ ৮২ হাজার ২৩২ টাকা। অর্থাৎ আগের সপ্তাহের চেয়ে লেনদেন কমেছে।

লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৯২টির, কমেছে ১৩৫টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১০টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। এতে সিএসইর প্রধান সূচক ৮৭ পয়েন্ট বেড়ে ১৭ হাজার ৬৫৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

এমআই/এসকেডি

Link copied