পুরোনো চেহারায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৫ মার্চ ২০২২, ১১:২৯ এএম


পুরোনো চেহারায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

শিক্ষার্থীদের পদচারণা-কোলাহল মুখর না থাকলে প্রতিষ্ঠান যেন প্রাণহীন। সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের উচ্ছ্বাসে মুখর থাকবে স্কুল-কলেজ প্রাঙ্গণ, এটাই তো ছিল স্বাভাবিক। তবে, করোনার কারণে সে আনন্দে ভাটা পড়েছিল। সশরীরে পাঠদান শুরু হলেও পুরোদমে ক্লাস চালু ছিল না এতদিন। দুই বছর পর আজ থেকে স্কুল-কলেজে শুরু হয়েছে পুরোদমে শ্রেণি কার্যক্রম। এর মাধ্যমে পুরনো চেহারায় ফিরল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো।

অন্যদিকে, টানা দুই বছর বন্ধ থাকার পর প্রাক-প্রাথমিকেে আজ থেকে আবারও সশরীরে পাঠদান শুরু হয়েছে। 

মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) দেশের স্কুল-কলেজগুলোতে পুরোদমে ক্লাস চালু হলে সকাল থেকেই প্রতিষ্ঠানে আসতে থাকেন শিক্ষার্থীরা। এসময় তাদের মধ্যে ছিল খুশির ঝিলিক। খুশি শিক্ষক-অভিভাবকরাও। 

dhakapost

সকালে রাজধানীর উদয়ন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, তাপমাত্রা পরিমাপক যন্ত্র দিয়ে তাপমাত্রা মাপার পর শিক্ষার্থীদের ভেতরে ঢোকানো হচ্ছে। এরপর শিক্ষার্থীরা হাত ধুয়ে বা স্যানিটাইজ করে ক্লাসে প্রবেশ করছেন। গেটে দায়িত্বশীল ব্যক্তি সবার মুখে মাস্ক পরা নিশ্চিত করছেন। অবশ্য সব শিক্ষার্থীকেই স্বাস্থ্যবিধি মানতে দেখা গেছে। মূলত পুরোদমে ক্লাস শুরু হওয়ায় তাদের চোখেমুখে খুশির ঝিলিক ফুটছে। ছবি তোলার কথা বলতেই সবাই ভিক্টোরি সাইন দেখাল স্বহাস্যে। 

ব্রাইট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে গিয়ে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের ভিড় দেখা গেছে। নির্দিষ্ট সময়ের আগে আগেই অনেকে স্কুলের ফটকের সামনে এসেছেন।

জানতে চাইলে ব্রাইট স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী আলিফ হোসাইন বলেন, করোনার পরে স্কুল খুললেও সপ্তাহের প্রতিদিন ক্লাস হতো না। বন্ধুদের সঙ্গে গল্প করার সময়ও ছিল না। আজ থেকে প্রতিদিন আসবো ভাবতেই ভালো লাগছে।

এদিকে, পুরোদমে স্কুল-কলেজে শ্রেণি কার্যক্রম শুরু হওয়ায় খুশি শিক্ষকরাও। 

রাজধানীর উদয়ন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ জহুরা বেগম ঢাকা পোস্টকে বলেন, করোনার কারণে শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিখন ঘাটতি ছিল। তাদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের বেহাল দশা তৈরি হয়েছিল। এজন্য পুরোদমে ক্লাস শুরু করাটা জরুরি ছিল। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসায় আজ থেকে সেটা সম্ভব হল।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা সামাজিক দুরত্ব, স্বাস্থ্য বিধি মেনেই শ্রেণি কার্যক্রমে অংশ নিচ্ছে। ছোট ছোট বাচ্চাদের স্কুলে এসে যেভাবে নাচানাচি করতে দেখেছি, আমি খুবই অবাক হয়েছি। আসলে অনেক দিন পর পুরোদমে ক্লাস শুরু হওয়ায় তারা খুবই খুশি। 

দুই বছর পর শুরু প্রাক-প্রাথমিকের ক্লাস
করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে ২০২০ সালের মার্চ থেকে প্রাক-প্রাথমিক স্তরের ক্লাস বন্ধ ছিল। সংক্রমণ কমায় টানা দুই বছর পর মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) থেকে এ স্তরের ক্লাস শুরু হয়েছে। তবে ক্লাস চালু হলেও এখনই প্রতিদিন ক্লাসে আসবে না প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির শিশুরা। সপ্তাহে দুই দিন (রোববার ও মঙ্গলবার) ক্লাসে অংশ নেবে তারা।

এএজে/এসএম

Link copied