সালমান খানকে প্রাণে মারতে চাইছে কেন?

Dhaka Post Desk

বিনোদন ডেস্ক

১১ জুন ২০২২, ১১:২৯ এএম


সালমান খানকে প্রাণে মারতে চাইছে কেন?

অল্পের জন্য ভাঙতে বসেছিল বলিউডের অন্যতম স্তম্ভ। তিনি সালমান খান। তাকে হত্যার জন্য পরিকল্পনা সাজিয়ে বন্দুক নিয়ে হাজির এক গ্যাংস্টার। কিন্তু সঙ্গে পুলিশি পাহারা থাকার সুবাদে অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন অভিনেতা।

গত কিছুদিন ধরে বলিউডে বিরাজ করছে আতঙ্ক। সালমান খানকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে এক উড়ো চিঠির মাধ্যমে। বিষয়টি অভিনেতা প্রশাসনকেও জানিয়েছেন। এরপরও সাল্লু কাজ বন্ধ রাখেননি। তাই ভক্তদের মনে উৎকণ্ঠা আরও বেড়ে যায়।

কয়েকদিন আগেই খুন হয়েছেন তুমুল জনপ্রিয় পাঞ্জাবি গায়ক সিধু মুসে ওয়ালা। সন্দেহ করা হচ্ছে, তার খুনের পেছনে রয়েছে লরেন্স বিঞ্চোই নামের এক গ্যাংস্টার। পুলিশের তদন্তে জানা গেছে, সালমান খানকে হত্যার হুমকি দেওয়া ও পরিকল্পনার পেছনেও রয়েছে এই লরেন্স।

প্রশ্ন হলো, কী কারণে সালমান খানকে হত্যা করতে চাইছে এই গ্যাংস্টার লরেন্স? ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, লরেন্স বর্তমানে কারাগারে বন্দি। সেই অবস্থায় থেকেই সালমান খানকে হত্যার ছক আঁকেন তিনি। গত বুধবার মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চের একটি বিশেষ দল দিল্লিতে গিয়ে লরেন্সের গ্যাংকে কয়েক ঘণ্টা জেরা করে। সেই জেরায় উঠে আসে পরিকল্পনার কথা।

লরেন্সের দলের সদস্য বিক্রমজিত সিং বরাড়কে দেওয়া হয় হুমকি দেওয়ার দায়িত্ব। বিক্রমের নির্দেশেই হুমকি দেওয়া হয় সালমানকে। তবে বিক্রম এখন কানাডাতে। সেখান থেকে লরেন্সের আদেশ গ্যাংয়ের নিচের সদস্যদের সরবরাহ করছেন।

বিক্রমের নির্দেশে লরেন্স গ্যাংয়ের তিন সদস্য রাজস্থানের জালোর থেকে মুম্বাই আসেন হুমকির চিঠি দিতে। মুম্বাইতে রয়েছে তাদের গ্যাংয়ের আরেক সদস্য সৌরভ মহাকাল। তাকেও জেরা করেছে পুলিশ। জেরায় মহাকাল জানান, শুধুমাত্র তাদের গ্যাংয়ের প্রচারের জন্যই সালমান খানের মতো তারকাকে খুনের হুমকি দিয়েছেন তারা।

সালমানকে খুনের হুমকির চিঠি যে ব্যক্তি দিয়েছে, তাকেও ইতোমধ্যে শনাক্ত করে ফেলেছে মুম্বাই পুলিশ। শিগগিরই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

কেআই

Link copied