মেডিকেলে এখনই সশরীরে ক্লাস নয়

Tanvirul Islam

১৩ আগস্ট ২০২১, ১০:৩০ পিএম


মেডিকেলে এখনই সশরীরে ক্লাস নয়

করোনার বর্তমান পরিস্থিতিতে সশরীরে ক্লাসের জন্য মেডিকেল কলেজগুলো খোলার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে বিকল্প উপায়ে এ সময়ে পরীক্ষাসহ অভ্যন্তরীণ কিছু কার্যক্রম চালু রয়েছে। এরইমধ্যে ভার্চুয়ালি এমবিবিএস প্রথম বর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের ক্লাসও শুরু হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ আগস্ট) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মো. আলী নূর ঢাকা পোস্টকে বলেন, এখনই মেডিকেল কলেজগুলো খোলার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে ক্লাস শুরু হয়েছে। পরীক্ষা অনেক আগে থেকেই চলছে। সংক্রমণ পরিস্থিতি একটু কমতে শুরু করলেই আমরা সশরীরে ক্লাসের জন্য মেডিকেল কলেজগুলো খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেব।

কবে নাগাদ খোলা হতে পারে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখনও বিষয়টি নিয়ে ফাইনালি কোনো আলোচনা হয়নি। তাই এ মুহূর্তে এভাবে বলা যাচ্ছে না। সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনা করে আলোচনার মাধ্যমে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।

২১ আগস্ট থেকে মেডিকেল কলেজ খুলছে এমন গুঞ্জন প্রসঙ্গে আলী নূর বলেন, এটা নিয়ে হয়তো আলোচনা শুরু হয়েছে। তবে এ ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। একক মতামতের ভিত্তিতে মেডিকেল কলেজ খুলে দেওয়া হবে না। সবার সঙ্গে আলোচনা করেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, মেডিকেল কলেজগুলো আনুষ্ঠানিকভাবে খুলে দেওয়া না হলেও আমাদের সব কার্যক্রম চলছে৷ আমরা নিয়মিত পরীক্ষা নিচ্ছি। অনলাইনে ক্লাসও নিচ্ছি। কারণ, করোনায় সময়ে যদি ডাক্তার তৈরি বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে তো একটা সময় সংকট তৈরি হবে। কিছুদিন হলো এমবিবিএস প্রথম বর্ষের ক্লাসও শুরু করে দিয়েছি।

এদিকে, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম এনায়েত হোসেন ঢাকা পোস্টকে বলেন, মেডিকেল কলেজ খুলে দেওয়া বা সশরীরে ক্লাস শুরুর ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

২১ আগস্ট থেকে মেডিকেল কলেজগুলো খুলছে এমন সংবাদের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ রকম তো কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। হলে তো ব্যাপারটা সবার আগে আমি জানতাম। কোথা থেকে কীভাবে এ সিদ্ধান্ত এসেছে, আমার জানা নেই।

কবে থেকে খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে- জানতে চাইলে ডা. এনায়েত হোসেন আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতি যেহেতু এখন কিছুটা স্থিতিশীল, যদি এটা আর না বাড়ে, কমতে থাকে, তাহলে শিগগিরই খুলে দেওয়া হবে। তবে বিষয়টি এখনও আলোচনাধীন। ক্যাম্পাস বন্ধ থাকলেও আমাদের কার্যক্রম চলছে। প্রতিনিয়ত আমরা ক্লাস নিচ্ছি, পরীক্ষা হচ্ছে। পরীক্ষার সময়ে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে আসেন, পরীক্ষা দেন, আবার চলেও যান। এভাবেই চলছে।

স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, আগামী ২০ আগস্ট থেকে দেশের সব মেডিকেল কলেজ খোলার অনুমোদনের বিষয়ে অধিদফতর থেকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগে একটি প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে মেডিকেল কলেজ বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের পড়ালেখায় অনেক ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে। অনলাইনের মাধ্যমে পাঠদান অব্যাহত রাখা হলেও শিক্ষার্থীদের ব্যবহারিক ক্লাস করানো সম্ভব হচ্ছে না। মেডিকেল কলেজে ব্যবহারিক ক্লাস অনেক গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় বিভিন্ন বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষাও নেওয়া সম্ভব হয়নি। সেজন্য দ্রুত সময়ের মধ্যে সশরীরে পাঠদান শুরু করতে চায় স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতর।

এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতরের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, ২০ আগস্ট থেকে মেডিকেল কলেজগুলো খোলার অনুমতি চেয়ে মন্ত্রণালয়ে একটি প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে চূড়ান্ত অনুমোদন পেলে ২০ বা ২১ আগস্ট থেকে মেডিকেল কলেজে সশরীরে ক্লাস শুরু করা হবে।

তিনি আরও বলেন, এভাবে দীর্ঘদিন মেডিকেল কলেজের ক্লাস বন্ধ রাখা কোনো সমাধান হতে পারে না। শিক্ষার্থীদের অনেক ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে। ব্যবহারিক ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ আছে। সবকিছু বিবেচনায় এ প্রস্তাব করা হয়েছে।

১২ আগস্ট রাতে এক অনলাইন আলোচনায় কোভিড–১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির অন্যতম সদস্য প্রখ্যাত মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. তারিকুল ইসলাম বলেন, সরকার আগামী ২১ আগস্ট থেকে দেশের মেডিকেল কলেজগুলো খুলে দেওয়ার জন্য চেষ্টা করছে। কোন প্রক্রিয়ায় খুলে দেওয়া হবে, পরামর্শক কমিটির মিটিংয়ে এর পক্ষে-বিপক্ষে আলোচনা হয়েছে। 

বাংলাদেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ এবং ২৬ মার্চ থেকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। এরপর লকডাউন তুলে দেওয়া হলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি ধাপে ধাপে বাড়ানো হয়। সর্বশেষ আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটির মেয়াদ বাড়ায় সরকার। 

টিআই/আরএইচ

Link copied