ইরাকে নৃশংস আগ্রাসন পুরোপুরি অযৌক্তিক, মুখ ফসকে বললেন বুশ

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৯ মে ২০২২, ১২:৩৯ পিএম


ইরাকে নৃশংস আগ্রাসন পুরোপুরি অযৌক্তিক, মুখ ফসকে বললেন বুশ

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ (ফাইল ছবি)

টানা প্রায় তিন মাস ধরে ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালাচ্ছে রাশিয়া। রুশ এই আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে ইউরোপ ও আমেরিকাসহ পশ্চিমা বিশ্বের প্রায় সকল দেশ। এমনকি সমালোচনা করা থেকে বাদ যাচ্ছেন না সাবেক রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানরাও।

এই পরিস্থিতিতে ইউক্রেনে হামলার নিন্দা জানাতে গিয়ে বেশ বিব্রতকর মন্তব্য করে ফেলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ইউক্রেন আক্রমণের সমালোচনা করতে গিয়ে মুখ ফসকে তিনি বলেন, ইরাকে নৃশংস আগ্রাসন পুরোপুরি অযৌক্তিক। তবে মজার বিষয় হচ্ছে, ২০০৩ সালে জর্জ ডব্লিউ বুশের প্রশাসনের অধীনেই মার্কিন সামরিক বাহিনী ইরাকে হামলা করেছিল।

সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্টের মুখ ফসকে বলা এই কথার ভিডিও সামাজিক যেগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৯ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান ও ফক্স নিউজ।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাস্ট্রের ডালাসে বক্তব্য দেওয়ার সময় ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের নিন্দা জানাতে গিয়ে ভুল করে জর্জ ডব্লিউ বুশ ইরাকে হামলার নিন্দা জানিয়ে বসেন। অবশ্য এর পরপরই তিনি নিজের ভুল শুধরে নেন।

এরপরই ভুলের দায় কাঁধে তুলে বুশ দোষ চাপান নিজের বয়সের ঘাড়ে। সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্টের মুখ ফসকে বেরিয়ে পড়া বিব্রতকর এই ভুলের একটি ভিডিও স্যোশাল মিডিয়া প্লাটফর্ম টুইটারে ছড়িয়ে পড়েছে।

ভাইরাল ওই ভিডিওতে জর্জ ডব্লিউ বুশকে বলতে শোনা যায়, ‘ইরাকে সম্পূর্ণ অন্যায় ও নৃশংস আগ্রাসন চালানোর জন্য একজন ব্যক্তির সিদ্ধান্ত দায়ী।’ এরপরই এক মুহূর্তের জন্য নিজের বক্তব্যে থামেন বুশ। এরপর তিনি ফের বলেন, ‘আমি ইউক্রেনে আগ্রাসন বোঝাতে চেয়েছি... আমার বয়স ৭৫ বছর।’

বুশ যখন নিজের এই মন্তব্য শুধরে নিচ্ছিলেন, তখন সামনে উপস্থিত দর্শক ও শ্রোতাদের হাসতে শোনা যায়।

টিএম

Link copied