দীর্ঘদিন ধরে তীব্র ব্যথা, কিডনি থেকে বের হলো ২০৬টি পাথর

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২০ মে ২০২২, ১১:৪৭ এএম


দীর্ঘদিন ধরে তীব্র ব্যথা, কিডনি থেকে বের হলো ২০৬টি পাথর

এক ব্যক্তির কিডনি থেকে ২০৬টি পাথর বের করেছেন চিকিৎসকরা। দীর্ঘ ১ ঘণ্টার অপারেশনের পর এসব পাথর বাইরে বের করে আনা হয়। ব্যতিক্রমী এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর হায়দ্রাবাদে। বৃহস্পতিবার (১৯ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

সংবাদমাধ্যম বলছে, ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য তেলেঙ্গানার হায়দ্রাবাদের অ্যাওয়ার গ্লেনিগেলস গ্লোবাল হাসপাতালের চিকিৎসকরা কিহোল সার্জারির মাধ্যমে একজন রোগীর কিডনি থেকে ২০৬টি পাথর অপসারণ করে চমক লাগিয়ে দিয়েছেন। গুরুত্বপূর্ণ এই অপারেশনটি সম্পন্ন করতে চিকিৎসকরা সময় নেন এক ঘণ্টা।

কিডনি থেকে পাথর বের করা আলোচিত ওই রোগীর নাম বীরমল্ল রামলক্ষমাইয়া। ৫৬ বছর বয়সী এই ব্যক্তি হায়দ্রাবাদের নালগোন্দার বাসিন্দা। দীর্ঘসময় ধরে কোমরে তীব্র ব্যথায় ভুগছিলেন তিনি। তীব্র এই ব্যথা গরমের মাসগুলোতে তাপমাত্রা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে আরও বেড়ে যায়।

স্থানীয় চিকিৎসকের পরামর্শে ওষুধ খেয়ে সাময়িকভাবে যন্ত্রণা কমলেও স্থায়ী কোনও সমাধান হয়নি। মূলত টানা ব্যথা হওয়ার কারণে তিনি যেমন যন্ত্রণায় কষ্ট পাচ্ছিলেন ঠিক তেমনি তিনি কোনো কাজ করতে পারছিলেন না।

পরে এই ব্যথা নিয়েই হায়দ্রাবাদের অ্যাওয়ার গ্লেনিগেলস গ্লোবাল হাসপাতালের চিকিৎসকদের কাছে যান বীরমল্ল। সেখানে শল্য চিকিৎসার পর চিকিৎসকদের চোখ কপালে ওঠার জোগাড়। এক ঘণ্টার অপারেশনের পর তার কিডনি থেকে ২০৬টি পাথর বের করা হয়।

অ্যাওয়ার গ্লেনিগেলস গ্লোবাল হাসপাতালের সিনিয়র চিকিৎসক ডা. পুলা নবীন কুমার বলেন, ‘সাময়িক অনুসন্ধান এবং আলট্রাসাউন্ড স্ক্যান থেকে বীরমল্ল রামলক্ষমাইয়ার কিডনিতে একাধিক পাথর রয়েছে বলে দেখা যায়। পরে সিটি কাব স্ক্যান করেও পাথর থাকার বিষয়ে নিশ্চিত হই আমরা।’

তিনি জানিয়েছেন, রোগীর অবস্থা সঙ্কটজনক থাকায় তাৎক্ষণিক কিহোল সার্জারির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। অপারেশন করে ওই রোগীর কিডনি থেকে পাথরগুলো বের করা হয়েছে। অপারেশনের পর বীরমল্লার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।

ওই হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, গরমকালে উচ্চ তাপমাত্রার কারণে দেহের তাপমাত্রা বেড়ে যায়, ফলে ডিহাইড্রেশন হয় এবং সেখান থেকেই কিডনিতে পাথর জমার মতো সমস্যা তৈরি হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

আর তাই গরমের মধ্যে শরীরকে সতেজ রাখতে মানুষকে আরও বেশি পরিমাণে পানি এবং সম্ভব হলে ডাবের পানি পানের পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

টিএম

Link copied