করোনা টিকা পাঠাতে চান বাইডেন, সাড়া নেই কিমের

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২২ মে ২০২২, ১১:১০ এএম


করোনা টিকা পাঠাতে চান বাইডেন, সাড়া নেই কিমের

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে উত্তর কোরিয়ায়। পূর্ব এশিয়ার এই দেশটিতে প্রতিদিনই ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন বহু মানুষ। এই পরিস্থিতিতে সংক্রমণ ও মহামারি মোকাবিলায় পিয়ংইয়ংকে করোনা টিকা পাঠিয়ে সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।

তবে ওয়াশিংটনের সেই প্রস্তাবে কোনো সাড়া দেয়নি কিম জং উনের এই দেশটি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন নিজেই এই তথ্য সামনে এনেছেন। শনিবার (২১ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

বিশ্বজুড়ে দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে করোনা মহামারি চললেও বিশ্বের একমাত্র দেশ হিসেবে উত্তর কোরিয়া এতোদিন দাবি করে আসছিল তাদের দেশে কেউ ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়নি। তবে সম্প্রতি প্রথমবারের মতো দেশটি করোনা সংক্রমণের তথ্য স্বীকার করে।

এরপরই মূলত পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচির জন্য ব্যাপকভাবে নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ে বাকি বিশ্ব থেকে কার্যত বিচ্ছিন্ন এই দেশটির চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা এবং ভ্যাকসিনের অভাব নিয়ে উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছে।

বৈশ্বিক বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও বার্তাসংস্থা জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়ার কোভিড পরীক্ষার সক্ষমতার অভাব রয়েছে এবং জ্বরে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ঠিক কতজন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে তা নির্দিষ্ট করে প্রকাশ করেনি দেশটি। এমনকি দেশটি করোনার টিকাদান কার্যক্রমও শুরু করেনি।

এই পরিস্থিতিতে বাইরের দেশের সহায়তা নেওয়া উত্তর কোরিয়ার জন্য ভালো একটি বিকল্প হতে পারতো। তবে দক্ষিণ কোরিয়ার একজন কর্মকর্তা দিন দু’য়েক আগে জানান, করোনা মহামারি মোকাবিলায় দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে সাহায্য পাঠানোর প্রস্তাব দেওয়া হলেও তাতে সাড়া দেয়নি উত্তর কোরিয়া।

সর্বশেষ মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও জানান, যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ায় কোভিড ভ্যাকসিন পাঠানো প্রস্তাব দিলেও তাতে সাড়া দেয়নি উত্তর কোরিয়া। শনিবার দক্ষিণ কোরিয়ায় এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান তিনি।

উত্তর কোরিয়ার সরকারি সংবাদমাধ্যম দ্য কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি (কেসিএনএ) জানিয়েছে, দেশটিতে এখন পর্যন্ত প্রায় ২৫ লাখ মানুষ ‘জ্বরে’ আক্রান্ত হয়েছেন এবং এর কারণে দেশজুড়ে এখন লকডাউন জারি রয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক-ইওলের সাথে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ‘আমরা শুধু উত্তর কোরিয়াকেই নয়, চীনকেও ভ্যাকসিনের প্রস্তাব দিয়েছি এবং আমরা তা অবিলম্বে পাঠাতে প্রস্তুত রয়েছি।’

‘কিন্তু আমরা কোনো সাড়া পাইনি,’ যোগ করেন তিনি।

বিবিসি বলছে, উত্তর কোরিয়ার সরকার এর আগে বিশ্বব্যাপী ভ্যাকসিন-শেয়ারিং স্কিম কোভ্যাক্স’র এবং দক্ষিণ কোরিয়া থেকে ভ্যাকসিন পাঠানোর প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছিল। টিকা সহায়তা নিতে অস্বীকার করার পাশাপাশি দেশটি করোনা মহামারি সংক্রান্ত অন্যান্য সহায়তা প্রস্তাবও ফিরিয়ে দেয়।

তবে এরপরও বাকি বিশ্ব থেকে কার্যত বিচ্ছিন্ন এই দেশটিকে সহায়তায় ইচ্ছুক যুক্তরাষ্ট্র। দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেন, তিনি সঠিক পরিস্থিতিতে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে দেখা করতে ইচ্ছুক।

অবশ্য ডেমোক্র্যাটিক এই প্রেসিডেন্টের মতে, ‘এটি (বৈঠক) নির্ভর করবে তিনি (কিম) আন্তরিক কি না এবং তিনি বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছেন কি না, সেটির ওপর।’

টিএম

Link copied