রুটি, চা হাতে জ্বালানির দীর্ঘ সারিতে লঙ্কান সাবেক ক্রিকেটার

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৯ জুন ২০২২, ০৬:৫১ পিএম


রুটি, চা হাতে জ্বালানির দীর্ঘ সারিতে লঙ্কান সাবেক ক্রিকেটার

খাদ্য, জ্বালানি, ওষুধের তীব্র ঘাটতি মোকাবিলায় রীতিমতো লড়াই করছে দক্ষিণ এশিয়ার দারিদ্রপীড়িত দেশ শ্রীলঙ্কা। ভয়াবহ সংকটের মুখোমুখি হওয়া দেশটির হাজার হাজার মানুষ পেট্রল স্টেশনে জ্বালানি কেনার জন্য দিনের পর দিন সারিতে দাঁড়িয়ে থাকছেন। হয়তো কখনও মিলছে, আবার কখনও মিলছে না কাঙ্ক্ষিত জ্বালানি। সারিতে দাঁড়িয়ে থাকা লোকজনের অনেকেই অভূক্তও থাকছেন দীর্ঘ সময়। আর এই অভূক্ত মানুষের সেবায় নিজেকে নিযুক্ত করলেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটার রোশান মহানামা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে রোশানের শেয়ার করা কয়েকটি ছবিতে দেখা যায়, রাজধানী কলম্বোর একটি জ্বালানি স্টেশনে পেট্রল এবং ডিজেলের দীর্ঘ সারিতে দাঁড়ানো লোকজনের মাঝে চা এবং রুটি বিতরণ করেছেন এই ক্রিকেটার।

১৯৪৮ সালে ব্রিটেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভের পর এবারই প্রথম সবচেয়ে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটের মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলঙ্কা। করোনা মহামারি, জাতীয় অর্থনীতি পরিচালনায় সরকারের অদক্ষতা, বিশ্বজুড়ে জ্বালানির মূল্য বেড়ে যাওয়া ও রাষ্ট্রীয় কোষাগারে বৈদেশিক মুদ্রার মজুদ তলানিতে নেমে যাওয়ায় শ্রীলঙ্কায় বিপর্যয়কর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

জ্বালানি এবং রান্না করার গ্যাস কেনার জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকলেও শূন্য হাতে ফিরতে হচ্ছে লঙ্কানদের। বৈদেশিক মুদ্রার মজুত কমে যাওয়ায় খাদ্য, জ্বালানি ও ওষুধের মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি করতে পারছে না দক্ষিণ এশিয়ার এই দ্বীপ দেশটি।

টুইটে রোশান লিখেছেন, ‘আমরা আজ সন্ধ্যায় ওয়ার্ড প্লেস এবং উইজেরামা মাওয়াথার আশপাশে পেট্রলের সারিতে থাকা লোকজনের জন্য কমিউনিটি মিল শেয়ার দলের পক্ষ থেকে চা এবং বান রুটি পরিবেশন করেছি।’ টুইটারে এই ক্রিকেটার লিখেছেন, পেট্রল এবং ডিজেলের সারি দিন দিন দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে। সারিতে থাকা লোকজনের স্বাস্থ্য ঝুঁকিও বাড়ছে।

এদিকে, জ্বালানি স্টেশন পাহারা দেওয়ার জন্য শ্রীলঙ্কার সরকার সশস্ত্র পুলিশ ও সেনা সদস্যদের মোতায়েন করেছে। দক্ষিণ এশিয়ার দরিদ্র এই দেশটির সরকার জ্বালানি সাশ্রয়ের জন্য রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠান এবং স্কুল দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে।

টুইটারে লঙ্কান সাবেক এই ক্রিকেটার বলেছেন, ‘দয়া করে, জ্বালানির সারিগুলোতে পরস্পরের দেখাশোনা করুন। পাশাপাশি পর্যাপ্ত তরল এবং খাবার সাথে আনুন। আপনি অসুস্থ হলে পাশের সবচেয়ে কাছের ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করুন। অথবা সরকারি জরুরি সেবার ১৯৯০ নম্বরে কল করুন। এই কঠিন সময়ে আমাদের পরস্পরের খোঁজ নেওয়া দরকার।’

গত এপ্রিলে ৫১ বিলিয়ন বিদেশি ঋণ পরিশোধে নিজেদের অক্ষমতার ঘোষণা দেয় শ্রীলঙ্কা। বিশাল অংকের বেলআউটের জন্য আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) সাথে আলোচনা করছে দেশটির বর্তমান সরকার।

অন্যদিকে, রাজধানী কলম্বো থেকে ৩৬৫ কিলোমিটার উত্তরের ভিসুভামাদু শহরে শনিবার রাতে জ্বালানি সংগ্রহের সারিতে দাঁড়ানো লোকজন সৈন্যদের লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করেছে।

রোববার দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র নীলান্থা প্রেমারত্ন বলেছেন, ২০ থেকে ৩০ জনের একটি দল সৈন্যদের লক্ষ্য পাথর ছুড়েছে এবং সামরিক একটি ট্রাক ভাঙচুর করেছে।

পুলিশ বলছে, ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিশৃঙ্খলায় সেনাবাহিনী প্রথমবারের মতো গুলি চালিয়েছে। এতে চার বেসামরিক এবং তিন সৈন্য আহত হয়েছেন।

সূত্র: এএফপি, এনডিটিভি।

এসএস

Link copied