ইউক্রেনে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের পরামর্শ কাদিরভের

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০২ অক্টোবর ২০২২, ১২:৩০ পিএম


ইউক্রেনে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের পরামর্শ কাদিরভের

ইউক্রেনে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন রাশিয়ার চেচনিয়া অঞ্চলের প্রধান রমজান কাদিরভ। তবে তুলনামূলক কম ধ্বংসাত্মক পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। মূলত ইউক্রেনে রুশ বাহিনী নতুন করে বড় ধরনের ব্যর্থতার মুখে পড়ার পর তিনি এই আহ্বান জানান।

রাশিয়ার চেচনিয়া অঞ্চলের প্রধান রমজান কাদিরভ রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠ মিত্র হিসেবে পরিচিত। শনিবার (১ অক্টোবর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পূর্ব ইউক্রেনের শক্ত ঘাঁটি লাইম্যান শহর হারানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে রাশিয়া। রুশ সেনাদের ব্যর্থতার জন্য বাহিনীর শীর্ষ কমান্ডারদের নিন্দা করেছেন কাদিরভ। টেলিগ্রামে দেওয়া এক বার্তায় তিনি লিখেছেন: ‘আমার ব্যক্তিগত মত হচ্ছে, (ইউক্রেনে) আরও কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। এটা হতে পারে সীমান্ত এলাকায় সামরিক আইন ঘোষণা করা ও কম ধ্বংসাত্মক পারমাণবিক অস্ত্রের ব্যবহার করা।’

এর আগে শনিবার পূর্ব ইউক্রেনের দোনেতস্কের গুরুত্বপূর্ণ লাইম্যান শহরের নিয়ন্ত্রণ নেয় ইউক্রেনীয় বাহিনী। দোনেতস্ক অঞ্চলের উত্তরে নিজেদের কার্যক্রম পরিচালনায় রসদ সরবরাহ এবং পরিবহনের কেন্দ্র হিসাবে ব্যবহার করা এই শহরটি থেকে সেনাদের সরিয়ে আনার কথা স্বীকার করেছে রাশিয়া।

মূলত এই শহরে ইউক্রেনের সৈন্যরা রুশ সৈন্যদের ঘাঁটি ঘিরে ফেলার পর রাশিয়ার সেনাবাহিনীর শহরটি ছেড়ে চলে আসাকে ক্রেমলিনের ডনবাসের সমগ্র শিল্পাঞ্চল দখলের পরিকল্পনার জন্য বড় ধরনের ধাক্কা বলে মনে করা হচ্ছে।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন গত শুক্রবার ইউক্রেনের লুহানস্ক, দোনেতস্ক, খেরসন ও জাপোরিঝিয়াকে রাশিয়ায় অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন। আর এর পরদিনই ইউক্রেনের বাহিনীর হাতে লাইম্যান শহরের নিয়ন্ত্রণ হারাল রুশ সেনারা।

রয়টার্স বলছে, রাশিয়ার কাছে বিশ্বের বৃহত্তম পারমাণবিক অস্ত্রাগার রয়েছে, যার মধ্যে স্বল্প- ধ্বংসাত্মক কৌশলগত পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে যা বিরোধী সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মোতায়েন করার জন্য ডিজাইন ও প্রস্তুত করা হয়েছে।

এছাড়া রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভসহ অন্যান্য শীর্ষ পুতিন মিত্ররা ইঙ্গিত দিয়েছেন যে, রাশিয়াকে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করতে হতে পারে। তবে কাদিরভের আহ্বান অন্যদের তুলনায় সবচেয়ে জরুরি এবং স্পষ্ট।

উল্লেখ্য, ২০০৭ সাল থেকে চেচনিয়া প্রজাতন্ত্রের প্রধান হিসেবে দায়িত্বপালন করছেন রমজান কাদিরভ। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠ মিত্র হিসেবে পরিচিত এই ব্যক্তি ইউক্রেন যুদ্ধের শুরুতেই রুশ বাহিনীর পক্ষে যোগ দিয়েছিলেন।

ইউক্রেন যুদ্ধে গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার জন্য চলতি বছরের ২৮ মার্চ তাকে লেফটেন্যান্ট-জেনারেল পদে পদোন্নতি দেন পুতিন।

টিএম

Link copied