টাইটানিক ক্রুয়ের পোস্টকার্ড নিলামে বিক্রি হতে পারে ১৫ হাজার ডলারে

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৮ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৪৬

টাইটানিক ক্রুয়ের পোস্টকার্ড নিলামে বিক্রি হতে পারে ১৫ হাজার ডলারে

আরএমএস টাইটানিকের এক ক্রুয়ের লেখা পোস্টকার্ড নিলামে উঠেছে। সবচেয়ে বৃহৎ আধুনিক ও বিলাসবহুল যাত্রীবাহী জাহাজটি ডুবে যাওয়ার এক সপ্তাহ আগে পোস্টকার্ডটি লেখা হয়েছিল। নিলামে পোস্টকার্ডটির সর্বোচ্চ দাম হতে পারে ১৫ হাজার ডলার।

টাইটানিকের সিনিয়র ওয়ারলেস অপারেটর জ্যাক ফিলিপস ১৯১২ সালে তার বোন এলসিকে পোস্টকার্ডটি লিখেছিলেন। তিনি আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্ট থেকে এটি লিখেছিলেন, যেখানে জাহাজটি তৈরি হয়েছিল। জাহাজ তৈরির কাজ শেষ হয়েছিল মার্চের শেষে এবং জাহাজটিকে ডেকে নামানো হয় ১৯১২ সালের ২ এপ্রিল।

৫.৫ ইঞ্চি এবং ৩.৫ ইঞ্চির ওই পোস্টকার্ডের এক পাশে টাইটানিকের একটি ছবি রয়েছে, যখন জাহাজটি তৈরির কাজ চলছিল। এছাড়া এতে বেলফাস্টের পোস্টমার্কড রয়েছে।

কার্ডের এক অংশে লেখা রয়েছে, ‘কাজে খুব ব্যস্ত সময় যাচ্ছে। আশা করছি সোমবার যাত্রা শুরু করব এবং বুধবার সন্ধ্যায় সাউথাম্পটনে পৌঁছাব। আশা করি তুমি ভালো আছ।’ বার্তাটি শেষ হয়েছে দুটি শব্দে, ‘লাভ, জ্যাক’।

পোস্টকার্ডটি নিলামে তুলছে বোস্টনের আরআর অকশন। প্রতিষ্ঠানটির এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ববি লিভিংটন বলছিলেন, ‘ফিলিপস এমন একটি পোস্টকার্ড বেছে নিয়েছিলেন, যা তিনি যে জাহাজে কাজ করতেন সেটিকে (টাইটানিক) চিত্রিত করে।’

dhakapost

এক বিবৃতিতে লিভিংটন বলেন, ‘আমাদের গবেষণা বলছে, ৩০০ পোস্টকার্ডের মধ্যে এলসির কাছে থাকা পাঁচটি কার্ডের একটি এটি, যেটির সঙ্গে টাইটানিকের সম্পর্ক স্পষ্ট। এই পাঁচটির মধ্যে দুটিতে এক পাশে জাহাজের (টাইটানিক) ফটোগ্রাফ রয়েছে, যা ব্যতিক্রমী ও অপ্রতুল।’

তিনি বলেন, ফিলিপস হারিয়ে যাওয়া একজন হিরো, যিনি টাইটানিক ডুবে যাওয়ার সময় অনেক মানুষের জীবন বাঁচিয়েছেন। তিনি অক্লান্তভাবে চেষ্টা করেছিলেন যাত্রী ও ক্রুদের উদ্ধার করতে অন্য জাহাজে সাহায্যের জন্য বার্তা পাঠাতে।

১৯১২ সালের ১৪ এপ্রিল রাতে উত্তর অ্যাটলান্টিক মহাসাগরে হিমশৈলের (আইসবার্গের) সঙ্গে টাইটানিকের সংঘর্ষ হয়। এতে ১৫শর বেশি যাত্রী ও ক্রুর মৃত্যু হয়। আরআর অকশন বলছে, ২৫ বছর বয়সী ফিলিপস টাইটানিক থেকে ছিটকে পড়েন, যখন জাহাজটি পানিতে পুরোপুরি তলিয়ে যায়। তিনি ভেঙে যাওয়া একটি লাইফ বোটে উঠে নিজেকে রক্ষা করার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু প্রচণ্ড ঠান্ডায় তিনি মারা যান।

ফিলিপের পোস্টকার্ডটির নিলাম ১৪ এপ্রিল শেষ হবে। আরআর ওকশন বলছে, নিলামে পোস্টকার্ডটির দাম ১৫ হাজার ডলারে পৌঁছাতে পারে। টাইটানিকের ধ্বংসাবশেষ বিক্রিতে এটিই প্রথম নয়, ২০১৫ সালে বিলাসবহুল জাহাজটির ফার্স্টক্লাস লাঞ্চ মেন্যু নিলামে বিক্রি হয়েছিল ৮৮ হাজার ডলারে।

সূত্র: সিএনএন

এসএসএইচ

Link copied