সন্তান অসুস্থ হলেও ছুটি পাননি, চাকরি ছেড়ে মাসে আয় কোটি টাকা

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০১ অক্টোবর ২০২১, ১২:৪২ পিএম


সন্তান অসুস্থ হলেও ছুটি পাননি, চাকরি ছেড়ে মাসে আয় কোটি টাকা

চাকরি ছেড়ে কোটিপতি

অডিও শুনুন

অসুস্থ বাচ্চাকে দেখভালের কেউ নেই বাড়িতে। তাই বসের কাছে ছুটি চেয়েছিলেন। বস রাজি হননি। উপায় না দেখে চাকরি ছাড়তে বাধ্য হন। কিন্তু অভাব জেঁকে বসে। কিন্তু উপায়? যেখানে সমস্যা সেখানেই নতুন সম্ভাবনা। চাকরি ছেড়ে দেওয়া ওই ব্যক্তি প্রয়োজনের তাগিদেই হয়ে উঠলেন কোটিপতি। তিন বছরের মধ্যে বার্ষিক আয় দাঁড়াল ১৪ কোটি টাকা। কীভাবে?

একটি কোম্পানিতে কাজ করতেন তিনি। এক বছরের মেয়ে অসুস্থ হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয়। মেয়েকে দেখাশোনার জন্য অফিস থেকে বসের কাছে ছুটি চান। কিন্তু বস ছুটি না দেওয়ায় চাকরি ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। এরপর সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়ে তার।

চাকরি না খুঁজে তার বন্ধুদের পরামর্শে অনলাইন বিজনেস শুরু করেন। শুরুতে অনেক বাধা-বিপত্তি ও প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হতে হয় তাকে। কিন্তু এখন তিনি প্রতি বছর কোটি কোটি টাকা আয় করছেন। কীভাবে ব্যবসা করে এভাবে কোটিপতি হলেন?

আরও পড়ুন: ভয়ঙ্কর বিপদ, ভারত মহাসাগরের তলদেশে আইফেল টাওয়ারের চেয়ে বড় আগ্নেয়গিরি 

ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মিরর বলছে, ৩৩ বছর বয়সী ওই নারীর নাম ওমোটায়ো আদিবেসি। ব্রিটেনের নর্দাম্পটনের একটি ইউটিলিটি কোম্পানিতে কাজ করতেন তিনি। চাকরি ছাড়ার পর বন্ধুরা তাকে একটি প্রস্তাব দেন। নিজের অনলাইন বিজনেস শুরু করতে বলেন। এই আইডিয়াই তার জীবন বদলে দিয়েছে। দুই সন্তানের মা ওমোটায়ো আদিবেসি অনলাইনে জন্মদিনের খেলনা, গিফট হ্যাম্পার এবং ফিটনেস আইটেম বিক্রি শুরু করেন। টিলজমার্ট নামের ওই ওয়ান স্টপ শপই কপাল খুলে দেয় তার।

আদিবেসি ২০১৭ সালে নিজের কোম্পানি শুরু করেন। নিজের জমা চার লাখ টাকা দিয়ে জিনিসপত্র কিনে এনে অনলাইনে বিক্রি করেন তিনি।

আরও পড়ুন: কাপড় ধোয়ার কাজ ছেড়ে কোটিপতি

আদিবেসি জানান, এই কাজের শুরুতে আমার স্বামী আমাকে সহযোগিতা করেছেন। ঘরেই জিনিসপত্র প্যাকিং ও লেভেলিং করতেন। ব্যবসার শুরুতেই লক্ষাধিক টাকা লোকসান হয় তাদের। তবে তারা নিজেদের ওপর আস্থা হারাননি। ভুল শুধরে নিয়ে দ্রুতই লাভের মুখ দেখেন।

২০১৯ সালে ই-কমার্স সাইট আমাজনে নিজেদের ওয়েবসাইট যুক্ত করেন এই দম্পতি। এখন তাদের ওয়েবসাইটে ৭০টিরও বেশি কোম্পানির ব্র্যান্ড রয়েছে। বাৎসরিক আয় ১৪ কোটি টাকার বেশি। আপাতত তাদের ২৫ জন পার্টটাইম ও ফুলটাইম কর্মচারী রয়েছেন। নিজের ব্যবসার পরিধি আরও বাড়াতে চান আদিবেসি।

এইচকে

Link copied