কম্পিউটার শিক্ষকদের নিয়ে আদালতের আদেশ এনটিআরসিএ-তে

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

০৯ মে ২০২১, ০১:১৮ পিএম


কম্পিউটার শিক্ষকদের নিয়ে আদালতের আদেশ এনটিআরসিএ-তে

হাইকোর্ট/ ফাইল ছবি

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত এমপিওভুক্ত নিবন্ধনধারী কম্পিউটার শিক্ষকদের এনটিআরসিএ’র তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে আবেদনের সুযোগ দিতে হাইকোর্টের লিখিত আদেশ প্রকাশ হয়েছে। আদেশটি এনটিআরসিএ-তে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (৯ মে) রিটকারীদের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘কম্পিউটার শিক্ষকদের এনটিআরসিএ’র তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে আবেদনের সুযোগ দিতে হাইকোর্টের লিখিত আদেশ প্রকাশ হয়েছে। আজ লিখিত আদেশটি এনটিআরসিএ’র প্রধান কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।’

এর আগে গত ২ মে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত এমপিওভুক্ত নিবন্ধনধারী কম্পিউটার শিক্ষকদের এনটিআরসিএ’র তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে আগামী ১০ (দশ) দিনের মধ্যে আবেদনের সুযোগ দেওয়ার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে কম্পিউটার বিষয়ে নিবন্ধনধারী শিক্ষকদের এনটিআরসিএ’র অধীনে প্রকাশিত ৩য় গণবিজ্ঞপ্তিতে বিভাগীয় প্রার্থীদের আবেদনের সুযোগ দেওয়ার নির্দেশনা কেন দেওয়া হবে না, এই মর্মে রুল জারি করেন আদালত।

৬৩ জন কম্পিউটার শিক্ষকের দায়ের করা রিটের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সরদার মো. রাশেদ জাহাঙ্গীরের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। সে দিন আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অরবিন্দ কুমার রায়।

পরে আইনজীবী মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বলেন, গত ৩০ মার্চ এনটিআরসিএ এমপিওভুক্ত ও নন-এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মোট ৫৪ হাজার ৩০৪ জন শিক্ষক নিয়োগের জন্য তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। গণবিজ্ঞপ্তিতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি/কম্পিউটার বিষয়ে সারাদেশে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রায় ৭ হাজার শূন্যপদ দেখানো হয়েছে।

নীতিমালার শর্তানুযায়ী, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত এমপিওভুক্ত কম্পিউটার সনদধারী শিক্ষকদের বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে আবেদন করার সুযোগ থাকলেও এনটিআরসিএ’র অনলাইন আবেদনের অপশনে বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে আবেদনের সুযোগ রাখা হয়নি। যে কারণে সারাদেশের ৬৩ জন শিক্ষক এই রিট আবেদন দায়ের করেন।

আইনজীবী মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া আরও বলেন, হাইকোর্টের ওই আদেশের ফলে এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি/কম্পিউটার বিষয়ে এমপিওভুক্ত নিবন্ধনধারী শিক্ষকদের এনটিআরসিএ প্রকাশিত তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে আবেদনের বাধা থাকল না।

কম্পিউটার শিক্ষক ওসমান গণি, সুদেব চন্দ্র পাল, গিতা, মোছা. রেখা খাতুন, মোছা. রিক্তা খাতুন, আরিফুল ইসলাম, মো. আব্দুল্লাহিল বাকী, মো. শাহিনুর রহমান, শারমিন মজুমদার, মন্টু লাল সরকারসহ ৬৩ জন এই রিট করেন।

রিটে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগ ও কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব, এনটিআরসি’র চেয়ারম্যানসহ চারজনকে বিবাদী করা হয়।

এমএইচডি/এসএসএইচ

Link copied